করোনাভাইরাস

২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ২৪, মোট শনাক্ত ৩০ হাজার ছাড়াল

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ২৪ জন মারা গেছেন। এটিই এখন পর্যন্ত দেশে এক দিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৩২ জনে দাঁড়াল। একই সময়ে আক্রান্ত আরও এক হাজার ৬৯৪ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৩০ হাজার ২০৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে।
প্রতীকী ছবি। (সংগৃহীত)

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ২৪ জন মারা গেছেন। এটিই এখন পর্যন্ত দেশে এক দিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৩২ জনে দাঁড়াল। একই সময়ে আক্রান্ত আরও এক হাজার ৬৯৪ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৩০ হাজার ২০৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে।

আজ শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দৈনন্দিন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের ৪৭টি ল্যাবে নয় হাজার ৭২৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে এক হাজার ৬৯৪ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ৩০ হাজার ২০৫ জন। মারা গেছেন আরও ২৪ জন। বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে তাদের মধ্যে একজনের বয়স ৮১-৯০ বছরের মধ্যে, দুই জনের বয়স ৭১-৮০ বছরের মধ্যে, ছয় জনের বয়স ৬১-৭০ বছরের মধ্যে, পাঁচ জনের বয়স ৫১-৬০ বছরের মধ্যে, দুই জনের বয়স ৪১-৫০ বছরের মধ্যে, তিন জনের বয়স ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ও পাঁচ জনের বয়স ২১-৩০ বছরের মধ্যে। এখন পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন ৪৩২ জন।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ৫৮৮ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ছয় হাজার ১৯০ জন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৪১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য বুলেটিনে জানানো হয়, দেশে শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২০ দশমিক ৪৯ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় বলে জানায় সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। আর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যুর সংবাদ জানানো হয়।

Comments

The Daily Star  | English

World Bank suggests unified exchange rate, further monetary tightening

The World Bank has recommended Bangladesh put in place a unified exchange rate and tighten monetary policy further in order to tame persistently high inflationary pressure and end the foreign exchange crisis.

6h ago