পাটুরিয়া ফেরিঘাট ও আরিচা ঘাট এলাকায় তীব্র ভাঙ্গন

মানিকগঞ্জে পদ্মা-যমুনা নদীতে হঠাৎ পানি বৃদ্ধি ও গত কয়েক দিনের প্রবল বৃষ্টিতে নদী তীরবর্তী পাটুরিয়া ফেরিঘাট ও আরিচা ঘাট এলাকায় তীব্র ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এখনই ভাঙ্গনরোধে কার্যকর ব্যবস্থা না নেওয়া হলে যে কোন সময়ে বন্ধ হয়ে যেতে পারে দেশের দক্ষিণ ও পশ্চিম অঞ্চলের জেলাগুলোর সঙ্গে রাজধানী ঢাকার যোগাযোগের অন্যতম নৌপথ পাটুরিয়া- দৌলতদিয়া ফেরি চলাচল।
নদীতে হঠাৎ পানি বৃদ্ধি ও গত কয়েক দিনের প্রবল বৃষ্টিতে আরিচা ঘাট এলাকায় তীব্র ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। ছবি:জাহাঙ্গীর শাহ

মানিকগঞ্জে পদ্মা-যমুনা নদীতে হঠাৎ পানি বৃদ্ধি ও গত কয়েক দিনের প্রবল বৃষ্টিতে নদী তীরবর্তী পাটুরিয়া ফেরিঘাট ও আরিচা ঘাট এলাকায় তীব্র ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এখনই ভাঙ্গনরোধে কার্যকর ব্যবস্থা না নেওয়া হলে যে কোন সময়ে বন্ধ হয়ে যেতে পারে দেশের দক্ষিণ ও পশ্চিম অঞ্চলের জেলাগুলোর সঙ্গে রাজধানী ঢাকার যোগাযোগের অন্যতম নৌপথ পাটুরিয়া- দৌলতদিয়া ফেরি চলাচল।

জেলার শিবালয় উপজেলার পাটুরিয়া ফেরি ঘাটের ৩, ৪ ও ৫ নং পন্টুন এলাকায় তীব্র ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। অন্যদিকে, একই উপজেলার যমুনা নদী তীরের আরিচা ঘাট এলাকায় ভাঙ্গনে ইতোমধ্যেই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ বেশ কিছু স্থাপনা ভেঙ্গে গেছে। ভাঙ্গনের হুমকির মুখে পড়েছে অন্তত ১০টি সরকারি প্রতিষ্ঠানসহ আরিচা নদীবন্দরের বহু ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ অসংখ্য বাড়িঘর। আরিচা ঘাটের উত্তর পাশে যমুনা নদী তীরের নিহালপুর থেকে দক্ষিণে প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকাজুড়ে তীব্র এ ভাঙ্গনে দিশেহারা হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী।

আরিচা ঘাটের কাছে ভাঙ্গন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড চলতি মওসুমে নদী খননের কাজ করলেও তাতে কোন লাভ হয়নি। বরং নদী ভাঙ্গন আরও তীব্র আকার ধারণ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।

মানিকগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাঈন উদ্দিন বলেন, আরিচা ঘাটের কাছে যমুনার ভাঙ্গন ঠেকাতে প্রাথমিকভাবে ৬০ লাখ টাকা ব্যয়ে ১৩ হাজার জিও ব্যাগ ফেলার কাজ আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হবে।

এদিকে, বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদিক আজ সকালে পাটুরিয়া

ঘাটের ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন। তিনি ভাঙ্গনরোধে প্রকৌশল বিভাগকে তাৎক্ষণিক কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন।



বিআইডব্লিউটিএ আরিচা অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলী নিজাম উদ্দিন পাঠান জানান, জরুরিভিত্তিতে পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় জিও ব্যাগ ফেলার কাজ শুরু করা হয়েছে। আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে আগামী দুসপ্তাহের মধ্যে ভাঙ্গনরোধ সম্ভব হবে।

ইতোমধ্যেই, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে ফেরি-লঞ্চ চলাচল স্বাভাবিক রাখতে জরুরিভিত্তিতে পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায় ভাঙ্গনকবলিত ৩টি পন্টুন এলাকায় মেরামতের কাজ চলছে।

Comments

The Daily Star  | English
Dhaka Airport Third Terminal: 3rd terminal to open partially in October

HSIA’s terminal-3 to open in Oct

The much anticipated third terminal of the Dhaka airport is likely to be fully ready for use in October, enhancing the passenger and cargo handling capacity.

10h ago