করোনাভাইরাস

মৃত্যু ৩ লাখ ৬৪ হাজার, আক্রান্ত ৫৯ লাখের বেশি

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়তই বাড়ছে নতুন করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। ইতোমধ্যে ৩ লাখ ৬৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯ লাখেরও বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় ২৫ লাখ মানুষ।
ক্যালিফোর্নিয়ায় সুরক্ষা পোশাক পরে করোনা আক্রান্ত এক রোগীকে চিকিৎসাসেবা দিচ্ছেন এক স্বাস্থ্যকর্মী। ২৭ মে ২০২০। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়তই বাড়ছে নতুন করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। ইতোমধ্যে ৩ লাখ ৬৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯ লাখেরও বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় ২৫ লাখ মানুষ।

আজ শনিবার জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯ লাখ ২৭ হাজার ২৫৫ জন এবং মারা গেছেন ৩ লাখ ৬৪ হাজার ৯৩৩ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ২৪ লাখ ৯৩ হাজার ৭৯২ জন।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ লাখ ৪৭ হাজার ৮৭ জন এবং মারা গেছেন ১ লাখ ২ হাজার ৮৩৬ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৬ হাজার ৪৪৬ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত রয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৬৫ হাজার ১৬৬ জন, মারা গেছেন ২৭ হাজার ৮৭৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৮৯ হাজার ৪৭৬ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছেন যুক্তরাজ্যে। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৩৮ হাজার ২৪৩ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭২ হাজার ৬০৭ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ১৭২ জন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে রাশিয়াতেও। সেখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৮৭ হাজার ৬২৩ জন এবং মারা গেছেন ৪ হাজার ৩৭৪ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫৯ হাজার ২৫৭ জন।

এ ছাড়া, ইউরোপের দেশ স্পেনে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৩৮ হাজার ৫৬৪ জন, মারা গেছেন ২৭ হাজার ১২১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫০ হাজার ৩৭৬ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৩২ হাজার ২৪৮ জন, মারা গেছেন ৩৩ হাজার ২২৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫২ হাজার ৮৪৪ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৮৬ হাজার ৯২৩ জন, মারা গেছেন ২৮ হাজার ৭১৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬৭ হাজার ৯২১ জন। জার্মানিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৮২ হাজার ৯২২ জন, মারা গেছেন ৮ হাজার ৫০৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৬৪ হাজার ২৪৫ জন।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৪৬ হাজার ৬৬৮ জন, মারা গেছেন ৭ হাজার ৬৭৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ১৪ হাজার ৯৩১ জন। তুরস্কে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৬২ হাজার ১২০ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৪৮৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ২৫ হাজার ৯৬৩ জন।

প্রতিবেশী দেশ ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৭৩ হাজার ৪৯১ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৯৮০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮২ হাজার ৬২৭ জন।

ভাইরাসটির সংক্রমণস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৪ হাজার ১২৩ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৩৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৯ হাজার ৩৮২ জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। প্রতিষ্ঠানটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৪২ হাজার ৮৪৪ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারা গেছেন ৫৮২ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ১৫ জন।

Comments

The Daily Star  | English
irregular migration routes to Europe from Bangladesh

To Europe via Libya: A voyage fraught with peril

An undocumented Bangladeshi migrant worker choosing to enter Europe from Libya, will almost certainly be held captive by armed militias, tortured, and their families extorted for lakhs of taka.

22h ago