বাংলাদেশে উবারের ‘ট্রান্সপোর্ট সেফটি অ্যালায়েন্স’

সর্বোচ্চ সুরক্ষা নিশ্চিত করে এই দুর্যোগ মুহূর্তে কোভিড-১৯’র সংক্রমণ ঠেকাতে ট্রান্সপোর্ট সেফটি অ্যালায়েন্স (টিএসএ) গঠন করেছে উবার। এতে তাদের অংশীদার হিসেবে রয়েছে— ডিবিএল ফার্মা, যান্ত্রিক, ডেটল (রেকিট বেনকিসার) ও ফ্রেশ টিস্যু। আরও নিরাপদ উবার রাইড নিশ্চিত করার লক্ষ্যে গঠিত এই টিএসএ গ্রাহকদের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে কাজ করবে। একইসঙ্গে চালকদের স্বাস্থ্যসুরক্ষায় প্রয়োজনীয় সামগ্রীও সরবরাহ করবে।
Uber
রয়টার্স ফাইল ফটো

সর্বোচ্চ সুরক্ষা নিশ্চিত করে এই দুর্যোগ মুহূর্তে কোভিড-১৯’র সংক্রমণ ঠেকাতে ট্রান্সপোর্ট সেফটি অ্যালায়েন্স (টিএসএ) গঠন করেছে উবার। এতে তাদের অংশীদার হিসেবে রয়েছে— ডিবিএল ফার্মা, যান্ত্রিক, ডেটল (রেকিট বেনকিসার) ও ফ্রেশ টিস্যু। আরও নিরাপদ উবার রাইড নিশ্চিত করার লক্ষ্যে গঠিত এই টিএসএ গ্রাহকদের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে কাজ করবে। একইসঙ্গে চালকদের স্বাস্থ্যসুরক্ষায় প্রয়োজনীয় সামগ্রীও সরবরাহ করবে।

আজ শনিবার দেওয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে উবার।

এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে উবার ও জোটের সহযোগীরা যান্ত্রিকের ডিস্ট্রিবিউশন পয়েন্ট থেকে চালকদেরকে স্বাস্থ্য নিরাপত্তা সামগ্রী, যেমন: মাস্ক, সাবান, টিস্যু ও স্যানিটাইজার প্রদান করবে। চালকদেরকে ফ্রেশের পক্ষ থেকে টিস্যু বক্স ও রেকিট বেনকিসারের পক্ষ থেকে ডেটল সাবান সরবরাহ করা হবে।

এর আগে, গত এপ্রিলে ডিবিএল ফার্মা ক্র্যাক প্লাটুন নামে একটি অফলাইন প্রজেক্টের পৃষ্ঠপোষকতায় নেওয়া উদ্যোগে উবার চালকদের মাধ্যমে স্বাস্থ্যকর্মীদের যাতায়াতের জন্য বিনা মূল্যে পরিবহন সুবিধা ও পিপিই সরবরাহ করা হয়েছিল। এবার চালকদের মাস্ক প্রদান করবে ডিবিএল।

টিএসএ গঠনের বিষয়ে উবারের বাংলাদেশ ও পূর্ব ভারতের প্রধান রাতুল ঘোষ বলেন, ‘এই পরিস্থিতিতে অর্থনীতি সচল রাখতে, গ্রাহকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে ও যা কিছুই হোক সামনে এগিয়ে চলার প্রত্যয়ে উবার দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। সর্বোচ্চ সুরক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়েই স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে এই জোট গঠন করা হয়েছে। আমরা আমাদের সব সহযোগীদের প্রতি তাদের ভূমিকার জন্য আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ।’

‘বরাবরের মতোই আমরা প্রযুক্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিনিয়োগ চালিয়ে যাব এবং সকল উবার ব্যবহারকারীদের সুরক্ষিত রাখতে সরকারি নির্দেশনাগুলো মেনে চলবো’, বলেন তিনি।

রেকিট বেনকিসার (বাংলাদেশ) লিমিটেডের মহাপরিচালক বিশাল গুপ্ত বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে ডেটলের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ এবং তা আরও বেশি ফলপ্রসূ করতে আমরা নিরন্তর প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। আমরা সকল অংশীদারদের প্রতি কৃতজ্ঞ এবং সবাই মিলে এই জোটের মূল উদ্দেশ্য সফল করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

Comments

The Daily Star  | English

Loan default now part of business model

Defaulting on loans is progressively becoming part of the business model to stay competitive, said Rehman Sobhan, chairman of the Centre for Policy Dialogue.

2h ago