করোনা চিকিৎসায় কার্যকর হতে পারে হার্টবার্ন জাতীয় ওষুধ ‘ফেমোটিডিন’

করোনাভাইরাস চিকিৎসায় একটি ‘হার্টবার্ন’ জাতীয় ওষুধ ব্যবহারে সুফল মিলেছে। এমন দাবি যুক্তরাষ্ট্রের একদল গবেষকের।
Famotidine-1.jpg
ফেমোটিডিন। ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাস চিকিৎসায় একটি ‘হার্টবার্ন’ জাতীয় ওষুধ ব্যবহারে সুফল মিলেছে। এমন দাবি যুক্তরাষ্ট্রের একদল গবেষকের।

সিএনএন জানিয়েছে, বাড়িতে চিকিৎসাধীন ১০ জন কোভিড-১৯ রোগীর ওপর ওই গবেষণা চালানো হয়।

ওই দলের এক সহকারী গবেষক জানান, ‘ফেমোটিডিন’ নামে একটি আলসার ও গ্যাস্ট্রিকের মতো পাকস্থলীয় অম্ল নিঃসরণের সাধারণ ওষুধ দিয়ে প্রাথমিকভাবে একটি ছোট গ্রুপের ওপর পরীক্ষাটি চালানো হয়েছে। এতে যে ফল পাওয়া গেছে তা ‘ইতিবাচক’ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ভবিষ্যতে ওভার দ্য কাউন্টার (ওটিসি) উপাদান ফেমোটিডিনের কার্যকারিতা নিয়ে আরও বড় আকারে গবেষণাটি চালানো হবে বলেও জানান তিনি।

গতকাল মেডিকেল জার্নাল ‘গাট’-এ প্রকাশিত ওই প্রতিবেদন জানায়, গবেষণায় অংশগ্রহণকারী প্রথম রোগীর বয়স ২৩ বছর। শ্বাসকষ্ট ও কাশির উপসর্গ দেখা দেওয়ার ১০ দিন পর তাকে ওই ওষুধটি দেওয়া হয়।

সর্বশেষ অংশগ্রহণকারীর বয়স ৭৩ বছর। উপসর্গ দেখা যাওয়ার ২৬ দিন পরে তাকে ওষুধটি দেওয়া হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিভিন্ন বয়সী রোগীদের ফেমোটিডিনের ওই ফর্মুলা দেওয়ার ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই তাদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। গবেষকদের ধারণা, ফেমোটিডিন কোভিড-১৯ রোগটি সারানোর ক্ষেত্রে কার্যকর হতে পারে।

গবেষকরা জানান, ওষুধটি গ্রহণের দুই সপ্তাহের মধ্যেই প্রায় সব রোগী স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে গেছেন।

দশ রোগীর সাত জনের মধ্যেই কোনো ধরনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ছিল না। দুজনের দেহে হালকা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া যেমন, মাথা ঘোরানো ও গ্যাস্ট্রিকের ব্যথার মতো দেখা গেছে। তবে একজন রোগীর ক্ষেত্রে দেখা যায়, ফেমোটিডিন গ্রহণের পর তিনি আরও ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলেন।

‘কেস সিরিজ’ নামে ওই গবেষণা প্রতিবেদন লিখেছেন নর্থওয়েল ও কোল্ড স্প্রিং হারবার ল্যাবরেটরির একদল চিকিৎসক।

মার্চ ও এপ্রিল মাসে নিউইয়র্কে আক্রান্তদের মধ্যে ১০ জন রোগীর ওপর এ পরীক্ষাটি চালানো হয়। সেসময় এক গবেষক ঘরোয়া চিকিৎসায় ওষুধটি ব্যবহারের সুফল সম্পর্কে অন্য এক চিকিৎসকের মাধ্যমে জানতে পারেন।

ফেমোটিডিন তুলনামূলকভাবে সস্তা ও নিরাপদ হওয়ার কারণে বিষয়টি জানার পর থেকেই তারা এটি নিয়ে পরীক্ষা করে দেখতে আগ্রহী হন।

নিউইয়র্কের নর্থওয়েল হেলথের চিকিৎসক ডা. জোসেফ কনিগলিয়ারো বলেন, ‘এটি রোগীদের ওপর সবচেয়ে কার্যকরভাবে কী পদ্ধতিতে প্রয়োগ করা যেতে পারে সে সম্পর্কে আমরা জানতে চাই। মানুষকে হাসপাতাল থেকে দূরে রেখে বাড়িতেই নিরাপদ পরিবেশে সারিয়ে তোলার জন্য এ সম্পর্কে আমাদের জানতে হবে।’

করোনা চিকিৎসায় ফেমোটিডিনের কার্যকারিতা নিয়ে বর্তমানে বৃহৎ পরিসরে কাজ করছে ওই গবেষক দল। খুব দ্রুতই তারা এর ফলাফল জানতে পারবেন বলে আশা করছেন।

Comments