বিশ্বকাপের আদলে হবে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ!

এক লেগে হতে পারে এবার চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল এবং ফাইনাল। আগামীকাল বুধবার এই আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসতে পারে সংবাদ প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম স্কাই ইতালিয়া।

করোনাভাইরাসের কারণে মাঝে ফুটবল বন্ধ ছিল তিন মাসেরও বেশি সময়। লম্বা সময়ে আবারো লিগগুলো শুরু করেছে ইউরোপের দেশগুলো। তবে এখনও ইউরোপের সর্বোচ্চ আসর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মাঠে গড়ায়নি। জানা গেছে আগামী আগস্ট থেকে ফের শুরু হবে এ আসর।

আর সময় স্বল্পতার জন্য এবার আসরটি হতে পারে বিশ্বকাপের আদলে। অর্থাৎ এক লেগে হতে পারে এবার চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল এবং ফাইনাল। আগামীকাল বুধবার এই আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসতে পারে সংবাদ প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম স্কাই ইতালিয়া।

সংবাদে তারা জানিয়েছে, আগের সভাতেই এক লেগে মিনি-টুর্নামেন্ট আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে উয়েফা। মূল ঝামেলাটা শেষ ষোলোর বাকি চার ম্যাচ আয়োজন নিয়ে। এছাড়া ভাবনায় রয়েছে সম্প্রচার-ষত্বের অর্থ নিয়েও। কারণ এমনটা হলে কমপক্ষে ৬টি ম্যাচ কমে আসছে। আর্থিক ক্ষতির পরিমাণটা তাই অনেক।

এর মধ্যে চারটি দল -পিএসজি, আতালান্তা, অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ ও আরবি লাইপজিগ হোম ও অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলে কোয়ার্টার ফাইনালে নাম লিখেছে। আর বাকি দলগুলোর একটি করে ম্যাচ হয়েছে। তাতে চারটি দল হোম ম্যাচের সুবিধা পেয়েছে। রিয়াল মাদ্রিদকে ম্যানচেস্টার সিটি, চেলসিকে বায়ার্ন মিউনিখ, আলিম্পিক লিঁওকে জুভেন্টাস ও নাপোলিকে বার্সেলোনার আতিথেয়তা দেওয়ার কথা।

নিয়ম অনুযায়ীও এই চারটি দলকেও একই সুবিধা দেওয়া উচিৎ। এরমধ্যেই নাপোলির বিপক্ষে নিজেদের ম্যাচটি নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলতে চান না বলে জানিয়েছেন বার্সেলোনা কোচ কিকে সেতিয়েন।

আগামী ১২ আগস্ট ফের মাঠে গড়াচ্ছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। ১২ থেকে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত চলবে কোয়ার্টার ফাইনাল। এরপর ১৮ ও ১৯ আগস্ট হবে সেমি-ফাইনাল। এবং ২৩ আগস্ট ফাইনাল ম্যাচ দিয়ে শেষ হবে এবারের চ্যাম্পিয়ন লিগ। আর ম্যাচ আয়োজনের জন্য লিসবনের দুটি স্টেডিয়াম এস্তাদিও দা লুজ এবং এস্তাদিও হোসে আলভালাদকে নির্বাচন করেছে উয়েফা কর্তৃপক্ষ।

পরিকল্পনা অনুযায়ী ম্যাচগুলো হবে দর্শকবিহীন মাঠে। তবে দর্শক প্রবেশের ব্যাপারটি সম্পূর্ণ নির্ভর করবে পর্তুগিজ সরকারের উপর।

এবার ফাইনালটি অবশ্য হওয়ার কথা তুরস্কের রাজধানী ইস্তাম্বুলে। সেটা পুষিয়ে দিতে আগামী কোনও এক মৌসুমে ইস্তাম্বুলকে ফাইনাল আয়োজনের সুযোগ করে দেওয়া হতে পারে।

এছাড়া ইউরোপা লিগ নিয়ে কিছু জানা না গেলেও তবে ধারণা করা হচ্ছে, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের মতোই হবে এ আসরও। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরই এ বিষয়ে আলোচনা করবেন তারা। গুঞ্জন রয়েছে জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্ট বা ডুসেলডর্ফকে সম্ভাব্য ভেন্যু হিসেবে ভাবা হচ্ছে।

Comments

The Daily Star  | English

Peacekeepers can face non-deployment for rights abuse: UN

The UN peacekeepers can face non-deployment and even repatriation if the allegations of human rights against them are substantiated

37m ago