দক্ষিণের সঙ্গে সম্পর্কে অবনতি, লিয়াজোঁ অফিস গুড়িয়ে দিয়েছে উত্তর কোরিয়া

দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপ নেওয়ার হুমকির কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সীমান্তের যৌথ লিয়াজোঁ অফিস বিস্ফোরণে গুড়িয়ে দিয়েছে উত্তর কোরিয়া।
দক্ষিণ কোরিয়া সীমান্তের কায়েসংয়ে অবস্থিত যৌথ লিয়াজোঁ অফিস বিস্ফোরণে গুড়িয়ে দেয় উত্তর কোরিয়া। ছবি: রয়টার্স

দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপ নেওয়ার হুমকির কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সীমান্তের যৌথ লিয়াজোঁ অফিস বিস্ফোরণে গুড়িয়ে দিয়েছে উত্তর কোরিয়া।

বিবিসি জানায়, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বিকেল ৩টার দিকে দক্ষিণ কোরিয়া সীমান্তের কায়েসং শহরে অবস্থিত যৌথ লিয়াজোঁ অফিসে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে।

এর আগে, দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের বোন ও ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রথম উপ-বিভাগের পরিচালক কিম ইয়ো জং।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কেসিএনএ-তে প্রকাশিত কিম ইয়ো জংয়ের এক বিবৃতিতে দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে পরবর্তী প্রতিশোধমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উত্তর কোরিয়ার সামরিকবাহিনীকে নির্দেশ দেওয়ার কথা বলা হয়।

দক্ষিণ কোরিয়াকে শত্রু হিসেবে উল্লেখ করে কিম ইয়ো জং বলেন, ‘সীমান্ত শহর কায়েসংয়ের লিঁয়াজো অফিসের পতনের সাক্ষী হতে যাচ্ছে সিউল।’

এমন হুমকির জবাবে মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানান, দক্ষিণ কোরিয়ার ভূখন্ডে অবস্থানরত মার্কিন সেনাবাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনীর গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

বেশ কিছুদিন ধরেই উত্তর কোরিয়া থেকে পালিয়ে যাওয়া লোকজনের বিরূপ কর্মকাণ্ড নিয়ে দুই কোরিয়ার মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছে।

উত্তর কোরিয়ার পক্ষত্যাগীরা দক্ষিণ কোরিয়ার সীমান্তে লিফলেট ও বার্তা পাঠানো নিয়েই দু’দেশের মধ্যে বিরোধের সূত্রপাত ঘটে।

উত্তর কোরিয়া থেকে পালিয়ে যাওয়া মানুষের কর্মকাণ্ডে দক্ষিণ কোরিয়া বাধা দিতে না পারলে তাদের চরম মূল্য দিতে হবে বলে এ মাসের শুরুতেই হুমকি দিয়েছিলেন কিম ইয়ো জং। পক্ষত্যাগীরা বেলুন এবং ড্রোন ব্যবহার করে পিয়ংইয়ংয়ের ‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের প্রচারণা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে।

দুই কোরিয়ার মধ্যে যোগাযোগের জন্য উত্তর কোরিয়ায় ২০১৮ সালে ওই লিয়াজোঁ অফিস চালু হয়েছিল।

Comments

The Daily Star  | English

Quota protesters need to move the court, not the govt: PM

Hasina says protesters have to move the court, not the govt to resolve the issue, warns them against destructive activities

3h ago