দক্ষিণের আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান, সীমান্তে সেনা মোতায়েন করবে উত্তর কোরিয়া

সীমান্তে লিয়াজোঁ অফিস বিস্ফোরণে গুড়িয়ে দেওয়ার পর দুই কোরিয়ার মধ্যকার উত্তেজনা নিয়ে আলোচনার প্রস্তাব জানায় দক্ষিণ কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার ওই আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে উত্তর কোরিয়া।
গত সোমবার সীমান্তে লিয়াজোঁ অফিস গুঁড়িয়ে দেয় উত্তর কোরিয়া। ছবি: রয়টার্স

সীমান্তে লিয়াজোঁ অফিস বিস্ফোরণে গুড়িয়ে দেওয়ার পর দুই কোরিয়ার মধ্যকার উত্তেজনা নিয়ে আলোচনার প্রস্তাব জানায় দক্ষিণ কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার ওই আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে উত্তর কোরিয়া।

আলজাজিরা জানায়, আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানের পর সীমান্তে নতুন করে সেনা মোতায়েন করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে পিয়ংইয়ং।

বার্তাসংস্থা কেসিএনএ জানায়, সীমান্তবর্তী শহর কাইসংয়ে অবস্থিত লিয়াজোঁ অফিস গুড়িয়ে দেওয়ায় তীব্র নিন্দা জানায় দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতির কার্যালয়।

উত্তেজনার মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন তার নিরাপত্তা উপদেষ্টা চুং ইউই-ইয়ং ও গোয়েন্দাবাহিনীর প্রধান সুহ হুনকে বিশেষ দূত হিসেবে পাঠানোর প্রস্তাব দিয়ে পিয়ংইয়ংকে আলোচনায় ফেরার আহ্বান জানান।

কেসিএনএ জানায়, মুনের ওই আহ্বানকে ‘কৌশলী’ ও ‘অশুভ প্রস্তাব’ বলে উল্লেখ করে প্রস্তাবটি প্রত্যাখ্যান করেছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের বোন ও ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রথম উপ-বিভাগের পরিচালক কিম ইয়ো জং।

কেসিএনএ ওই প্রতিবেদনে জানায়, মুন জায়ে ইনের প্রস্তাব নিয়ে উপহাস করেছেন কিম। সঙ্কট মোকাবিলার জন্য দূতদের ব্যবহার করাকে ‘বেআইনি প্রস্তাব’ বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

প্রতিক্রিয়ায় মুনের অফিস জানায়, উত্তর কোরিয়ার কোনো ‘অযৌক্তিক আচরণ’ দক্ষিণ মেনে নেবে না।

বুধবার, কোরিয়ান পিপলস আর্মির (কেপিএ) জেনারেল স্টাফের এক মুখপাত্রের বরাতে কেসএনএ আরেকটি প্রতিবেদনে জানায়, উত্তর কোরিয়া সীমান্তের নিকটবর্তী কুমগাং ও ক্যাসং এলাকায় সেনা মোতায়েন করবে। ওই সীমান্ত এলাকায় আগে দুই কোরিয়া একটি যৌথ অর্থনৈতিক প্রকল্প পরিচালনা করেছিল।

Comments

The Daily Star  | English
Raushan Ershad

Raushan Ershad says she won’t participate in polls

Leader of the Opposition and JP Chief Patron Raushan Ershad today said she will not participate in the upcoming election

4h ago