রামচাঁদ গোয়ালা আর নেই

বাংলাদেশের ক্রিকেটে বাঁহাতি স্পিনের পথিকৃৎ বলা হয়ে থাকে তাকে।
ram_chand_goala
ছবি: সংগৃহীত

কিংবদন্তিতুল্য সাবেক ক্রিকেটার রামচাঁদ গোয়ালা আর নেই। শুক্রবার ভোরে ময়মনসিংহ শহরে নিজ বাড়িতে মারা গেছেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর।

অনেকদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত নানা ধরনের জটিলতায় ভুগছিলেন রামচাঁদ। তার মৃত্যু সংবাদ নিশ্চিত করেছেন বিসিবি পরিচালক ও আবাহনী ক্লাবের দীর্ঘদিনের সংগঠক আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি। 

ক্রিকেট ছিল রামচাঁদের ধ্যান-জ্ঞান। খেলা চালিয়ে গিয়েছিলেন পঞ্চাশ পেরিয়েও। ঢাকা আবাহনীর হয়ে মাঠ মাতিয়েছিলেন প্রায় দেড় দশক। বাংলাদেশের ক্রিকেটে বাঁহাতি স্পিনের পথিকৃৎ বলা হয়ে থাকে তাকে।

সাজ্জাদুল জানান, ‘রামচাঁদ গোয়ালা ছিলেন সত্যিকারের কিংবদন্তি। তিনি পঞ্চাশ পেরিয়ে যাওয়ার পরও খেলেছেন ঘরোয়া ক্রিকেট। আবাহনীর হয়েই খেলেছেন প্রায় ১৫ বছর। তিনি বাংলাদেশের বাঁহাতি স্পিনারদের পথপ্রদর্শক তিনি। সবচেয়ে বেশি বয়সে (৪৩ বছর) জাতীয় দলে অন্তর্ভুক্ত হয়েছিলেন। কত তরুণ ক্রিকেটার তার মাধ্যমে অনুপ্রাণিত হয়েছে, তার কোনো লেখাজোকা নেই।’

১৯৪১ সালে ময়মনসিংহ জেলা শহরের ব্রাহ্মপল্লি এলাকায় জন্মগ্রহণ করেছিলেন রামচাঁদ। আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে ইন্টারমিডিয়েট পাস করার পর পড়ালেখা ছেড়ে দিতে হয় তাকে। স্থানীয় পণ্ডিতপাড়া ক্লাবের হয়ে পেশাদার ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল তার।

পরবর্তীতে প্রায় ২০ বছর ঢাকার বিভিন্ন ক্লাবের হয়ে মাঠ মাতান রামচাঁদ। পুরো আশির দশক ও নব্বইয়ের দশকের শুরুর দিকে ঢাকা আবাহনীর হয়ে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখান তিনি। সুযোগ পেয়েছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলেও। তখন তার বয়স ছিল ৪৩ বছর!

কোচ ও সংগঠক হিসেবেও কাজ করেন ক্রিকেট অন্তঃপ্রাণ রামচাঁদ। স্থানীয় খেলোয়াড়দের জন্য ১৯৮১ সালে ময়মনসিংহ আবাহনী ক্রীড়া চক্র ক্লাব প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। প্রায় এক দশক স্থানীয় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের কোচের দায়িত্বও পালন করেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Cyclone Remal: Elderly man dies en route to shelter in Satkhira

He slipped and fell on the road while going to Napitkhali shelter with his wife on a cycle around 6:30pm

2h ago