শীর্ষ খবর

নারায়ণগঞ্জে অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্য আটক

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-১১। এ সময় তাদের কাছ থেকে এক ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করা হয়।
Arrest logo
প্রতীকী ছবি। স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-১১। এ সময় তাদের কাছ থেকে এক ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করা হয়।

আজ শনিবার বিকেলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল ইমরান উল্লাহ সরকার এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘শুক্রবার বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জের হাউজিং এলাকার একটি বহুতল ভবনের পাঁচতলা ফ্ল্যাট থেকে মো. রাসেল (২৮) নামে এক ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্রের দুই সক্রিয় সদস্যকে আটক করা হয়।’

আটককৃতরা হলো- চট্টগ্রাম সন্দীপ থানাধীন সাতঘরিয়া এলাকার আল আমিন (২৪) ও তার স্ত্রী ইরা ইসলাম (২২)।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ইমরান উল্লাহ সরকার জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দুই জন স্বীকার করেছে তারা দীর্ঘদিন ধরে সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকায় এ ধরনের অপহরণ করে আসছে। অপহরণ করার ক্ষেত্রে তারা অনেক ধরণের কৌশল অবলম্বন করে থাকে। তার মধ্যে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অপহরণ অন্যতম। তারা রাসেলকে অপহরণের বিষয়েও স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেয়।

রাসেলের অপহরণ বিষয়ে তারা জানায়, গত ১১ জুন চিটাগাং রোড থেকে রাসেলকে অপহরণের উদ্দেশ্যে তুলে নিয়ে যায়। সেখান থেকে তাকে চেতনানাশক ওষুধের মাধ্যমে অচেতন করে তাদের ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়। পরে বাসায় একটি গোপন কক্ষের ভিতর হাত-পা ও চোখ বেঁধে রাসেলকে মারধর করাসহ বিভিন্ন শারীরিক নির্যাতন করে এবং দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে রাসেলের পরিবারের কাছে ফোন করে। এ সময় কাউকে কিছু জানালে রাসেলকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। পরিবারের সদস্যরা রাসেলের জীবন বাঁচাতে ১৫ জুন রাতে বিকাশের মাধ্যমে ১০ হাজার টাকা পাঠায় এবং বাকি টাকা নগদে পরিশোধ করবে বলে জানায়। পরে রাসেলের মা র‌্যাব-১১ এর কাছে একটি অভিযোগ দাখিল করে। যার প্রেক্ষিতে রাসেলকে উদ্ধার ও দুই জনকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Comments

The Daily Star  | English
Benazir Ahmed corruption scandal

An IGP’s eye-watering corruption takes the lid off patronage politics

Many of Benazir Ahmed's public statements since assuming high office aligned more with the ruling party's political stance than with the neutral stance expected of a civil servant.

5h ago