উদ্বোধন হলেও চালু হলো না কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আইসিইউ-এইচডিইউ

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে আইসিইউ ও এইচডিইউ কার্যক্রমের উদ্বোধন হলেও, চিকিৎসা সেবা দেওয়ার মতো পরিবেশ নেই। এখনও শেষ হয়নি অবকাঠামো কাজ, রয়েছে চিকিৎসা যন্ত্রপাতির ঘাটতিও।
ছবি: সংগৃহীত

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে আইসিইউ ও এইচডিইউ কার্যক্রমের উদ্বোধন হলেও, চিকিৎসা সেবা দেওয়ার মতো পরিবেশ নেই। এখনও শেষ হয়নি অবকাঠামো কাজ, রয়েছে চিকিৎসা যন্ত্রপাতির ঘাটতিও।  

এ ব্যাপারে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, অবকাঠামো কাজ শেষ করা ও চিকিৎসা যন্ত্রপাতির ঘাটতি দূর করে রোগী ভর্তি করতে আরও সময় লাগবে।

গত শনিবার ২০ জুন সদর হাসপাতালে আইসিইউ ও এইচডিইউ চিকিৎসা সেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন কক্সবাজার সদর আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা হাসপাতাল ব্যবস্হাপনা কমিটির সভাপতি সাইমুম সরওয়ার কমল। 

উদ্বোধনের তিন দিন পরও এখানে রোগী ভর্তি করতে না পারায় ক্ষোভ জানিয়েছেন স্থানীয়রা।  

দৈনিক বণিকবার্তার কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি আবদুল্লাহ আল মামুন দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, করোনা আক্রান্ত তার বাবা নূর মোহাম্মদ (৭০) কে সদর হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করাতে গিয়ে পারেননি।

তিনি বলেন, ‘গত ১৪ জুন থেকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কক্সবাজার জেলার রামু আইসোলেশন সেন্টারে তিনি ও তার বাবা চিকিৎসাধীন আছেন। আজ সকাল ৯টার দিকে তার বাবার অক্সিজেন সেচ্যুরেশন কমে গেলে তিনি তার বাবাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আইসিইউতে স্হানান্তর করার জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে সহযোগিতা চান। জেলা প্রশাসক তাকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগের পরামর্শ দেন। হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও)  শাহীন মোহাম্মদ আবদুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি তাকে আইসিইউর দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক ডা. কফিল উদ্দীনের সাথে কথা বলতে বলেন। ডা. কফিল উদ্দীনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আইসিইউ এবং এইচডিইউতে কভিড-১৯ রোগীকে ভর্তি করে চিকিৎসা সেবা দেওয়ার মতো অবস্হা এখনও হয়নি। সবকিছু ঠিকঠাক করে রোগী ভর্তি করতে আরেও কয়েকদিন সময় লাগবে।’

এ বিষয়ে আজ রাত ৮টার দিকে ডা. কফিল উদ্দীনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘এখনও আইসিইউ এবং এইচডিইউর কিছু অবকাঠামোর কাজ বাকি আছে। তা দ্রুত শেষ করা হচ্ছে। কিছু চিকিৎসা যন্ত্রপাতিরও ঘাটতি আছে। যা দুই দিনের মধ্যে স্থাপন করা হবে। সবকিছু ঠিক করে রোগী ভর্তি করতে আরও দুই দিন লাগতে পারে।’

রোগী ভর্তি করানোর মতো পরিবেশ তৈরি না করে তাড়াহুড়া করে আইসিইউ ও এইচডিইউ কেন উদ্বোধন করা হলো জানতে চাইলে

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মহি উদ্দীন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, দুইদিনের মধ্যে রোগী ভর্তি করা যাবে।

এ বিষয়ে জেলা বিএমএর সাধারণ সম্পাদক ডা. মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘আরও কয়েকদিন লাগতে পারে আইসিইউ ও এইচডিইউ চালু করতে। এখনও কাজ চলছে বলে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।’

এদিকে, কক্সবাজারবাসীর সাথে ‌এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো প্রতারণা হয়েছে বলে ক্ষোভ জানিয়েছেন জেলার সচেতন নাগরিক সমাজের সংগঠন ‘আমরা কক্সবাজারবাসী’র সমন্বয়কারী মোহাম্মদ করিম উল্লাহ। 

উল্লেখ্য, গত ২০১৬ সালের ২৪ মে জেলা সদর হাসপাতালে ১০ শয্যার আইসিইউ চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন করা হলেও সেই আইসিইউ সেবা কক্সবাজারবাসী পায়নি।

Comments

The Daily Star  | English

Faridpur bus-pickup collision: The law violations that led to 13 deaths

Thirteen people died in Faridpur this morning in a head-on collision that would not have happened if operators of the vehicles involved had followed existing laws and rules

15m ago