নিজের বিদায়ী ম্যাচে মেসি-রোনালদোকে একসঙ্গে খেলাতে চান তেভেজ!

নিজের বিদায়ী ম্যাচ নিয়ে তিনি যে স্বপ্ন আঁকছেন, তা নিঃসন্দেহে ফুটবলপ্রেমীদের রোমাঞ্চিত করবে।
ronaldo and messi and tevez
ছবি: সংগৃহীত

বয়স পেরিয়ে গেছে ৩৬। সময় হয়েছে দীর্ঘ দুই দশকের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের ইতি টেনে বুটজোড়া তুলে রাখার। তাই অবসর নিয়ে ভাবতে শুরু করে দিয়েছেন আর্জেন্টিনার ফরোয়ার্ড কার্লোস তেভেজ। নিজের বিদায়ী ম্যাচ নিয়ে তিনি যে স্বপ্ন আঁকছেন, তা নিঃসন্দেহে ফুটবলপ্রেমীদের রোমাঞ্চিত করবে। কেননা, হালের দুই সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোকে একই দলে খেলানোর ইচ্ছা রয়েছে তার।

সম্প্রতি আর্জেন্টাইন গণমাধ্যম রেডিও লা রেডের কাছে তেভেজ বলেছেন, ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচে নামিদামি বর্তমান ও সাবেক তারকা ফুটবলারদের একসঙ্গে চান তিনি, ‘আমাকে যদি (বিদায়ী ম্যাচের জন্য) একটি দল জড়ো করতে বলা হয়, তবে জিয়ানলুইজি বুফন, হুগো ইবারা, রিও ফার্ডিন্যান্ড, গ্যাব্রিয়েল হেইঞ্জে, প্যাট্রিস এভরা, আন্দ্রেয়া পিরলো, পল স্কোলস, পল পগবা, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, লিওনেল মেসি ও  ওয়েইন রুনিকে এটি গঠিত হবে।’

শিগগিরই অবশ্য বিদায় নিচ্ছেন না আর্জেন্টিনার হয়ে ৭৬ ম্যাচে ১৩ গোল করা তেভেজ। বর্তমানে তৃতীয় দফায় স্বদেশি ক্লাব বোকা জুনিয়র্সের হয়ে খেলছেন তিনি। দলটির সঙ্গে তার চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে আগামী মঙ্গলবার। এরই মধ্যে আরও এক বছরের জন্য তাকে ধরে রাখার ছক কষেছে বোকা। তবে তেভেজের ভাবনাটা ভিন্ন। তিনি ছয় মাসের জন্য সেখানে থাকার ইচ্ছা পোষণ করেছেন। এরপর ফের ইউরোপ বা ব্রাজিলে পাড়ি জমানোর আগ্রহ রয়েছে তার।

ভবিষ্যৎ নিয়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার সিটি ও জুভেন্টাসের সাবেক ফরোয়ার্ড বলেছেন, ইংলিশ ক্লাব ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেড বা ব্রাজিলিয়ান ক্লাব করিন্থিয়ান্স হতে পারে তার আগামী ঠিকানা, ‘যদি ইউরোপে যেতে পারি, আমি ওয়েস্টহ্যামের হয়ে ছয় মাস খেলতে চাই ও প্রশংসা পেতে চাই। অথবা করিন্থিয়ান্সের হয়ে ছয় মাস খেলতে চাই। আমি কোনো সম্ভাবনাই উড়িয়ে দিচ্ছি না।’

উল্লেখ্য, করিন্থিয়ান্স ও ওয়েস্টহ্যাম, দুই ক্লাবেই খেলার অভিজ্ঞতা আছে তেভেজের। এছাড়া, চাইনিজ সুপার লিগের ক্লাব সাংহাই শেনহুয়াতেও ক্যারিয়ারের কিছুটা সময় কাটিয়েছেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Going abroad to study or work: Verifying documents to get easier

A Cabinet meeting today approved the proposal for Bangladesh to adopt the Apostille Convention, 1961 which facilitates the use of public documents abroad

26m ago