মৌসুমের শেষ পর্যন্ত বার্সাতেই থাকছেন আর্থুর

বার্সেলোনার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার আর্থুর মেলো ও জুভেন্টাসের বসনিয়ান মিডফিল্ডার মিরালেম পিয়ানিচের অদল বদল নিয়ে অনেক দিন থেকেই সরব ফুটবল পাড়া। শেষ পর্যন্ত এ চুক্তি হয়েছে। জুভেন্টাসে নাম লিখিয়েছেন আর্থুর। খুব শিগগিরই হয়ে যাবে পিয়ানিচের চুক্তিও। তবে চুক্তি হলেও এখনই তুরিনে চলে যাচ্ছেন না আর্থুর। চলতি মৌসুমের শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনার সঙ্গেই থাকছেন জানিয়ে এক বিবৃতি দিয়েছে ক্লাবটি।
ফাইল ছবি: এএফপি

বার্সেলোনার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার আর্থুর মেলো ও জুভেন্টাসের বসনিয়ান মিডফিল্ডার মিরালেম পিয়ানিচের অদল বদল নিয়ে অনেক দিন থেকেই সরব ফুটবল পাড়া। শেষ পর্যন্ত এ চুক্তি হয়েছে। জুভেন্টাসে নাম লিখিয়েছেন আর্থুর। খুব শিগগিরই হয়ে যাবে পিয়ানিচের চুক্তিও। তবে চুক্তি হলেও এখনই তুরিনে চলে যাচ্ছেন না আর্থুর। চলতি মৌসুমের শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনার সঙ্গেই থাকছেন জানিয়ে এক বিবৃতি দিয়েছে ক্লাবটি।

নিজেদের ওয়েবসাইটে ক্লাবটি  লিখেছে, 'ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনা ও জুভেন্টাস ফুটবল ক্লাব আর্থুর মেলোর চুক্তির ব্যাপারে সম্মত হয়েছে। ইতালিয়ান ক্লাবটি এর জন্য ৭২ মিলিয়ন ইউরো প্রদান করবে, সঙ্গে আনুষঙ্গিক হিসেবে থাকছে আরও ১০ মিলিয়ন ইউরো। তবে খেলোয়াড়টি অফিশিয়ালি ২০১৯/২০ মৌসুম শেষ না হওয়া পর্যন্ত বার্সেলোনায় থাকছেন।'

বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে মাঝে ফুটবল বন্ধ ছিল প্রায় ১০০ দিনের মতো। তাই নির্দিষ্ট সময়ে মৌসুম শেষ করতে পারছে কোনো লিগই। তবে উয়েফার অনুরোধে জুলাইয়ের মধ্যে শেষ করতে যাচ্ছে তারা। এরপর শুরু হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও ইউরোপা কাপের খেলা। আগস্টে হবে এ দুটি আসর। তাই অফিশিয়ালি আগস্ট পর্যন্তই হচ্ছে ২০১৯-২০ সালের মৌসুম। আর তার শেষ পর্যন্ত বার্সায় থাকছেন আর্থুর।

গত শনিবার সেলতা ভিগোর বিপক্ষে বার্সেলোনার ম্যাচের শেষ দিকে বদলী খেলোয়াড় হিসেবে নেমেছিলেন আর্থুর। সেদিন রাতেই মেডিক্যাল পরীক্ষা করাতে উড়ে যান তুরিনে। যদিও সেদিনই আবার ফিরে আসেন। তবে ফুটবল পাড়ায় গুঞ্জন ছিল সেলতার বিপক্ষেই বার্সার জার্সিতে নিজের শেষ ম্যাচ খেলে ফেলেছেন আর্থুর। তবে চলতি মৌসুম পর্যন্ত তাকে রেখে দিচ্ছে ক্লাবটি।

এ মুহূর্তে আর্থুর ইতালিতে চলে গেলে বেশ ঝামেলায় পড়ে যেত বার্সেলোনা। এমনিতেই মাঝমাঠে খুব বেশি বিকল্প নেই ক্লাবটির। তার উপর দলের অন্যতম সেরা মিডফিল্ডার ফ্রাঙ্কি ডি ইয়ং ইনজুরির কারণে চলতি মৌসুমই ভেস্তে যাওয়ার পথে। তার উপর ৩০ পেরুনো সের্জিও বুসকেতস, আর্তুরু ভিদাল ও ইভান রাকিতিচ টানা সূচিতে বেশ ক্লান্ত। তাই মৌসুমের শেষ পর্যন্ত আর্থুরকে রেখে দেওয়া সিদ্ধান্তে কিছুটা হলেও হাঁপ ছেড়ে বাঁচবেন বার্সা কোচ কিকে সেতিয়েন। 

২০১৮ সালে অনেক স্বপ্ন নিয়েই প্রিয় ক্লাব বার্সেলোনায় যোগ দিয়েছিলেন আর্থুর। শেষ পর্যন্ত নিজের পছন্দকে বিসর্জন দিতে হচ্ছে সে ক্লাবের স্বার্থেই। ধারণা করা হচ্ছে, ক্লাবের নানা আর্থিক অসঙ্গতি মিলানোর জন্য তাকে বিক্রি করে দিচ্ছে ক্লাবটি। ক্লাবের হয়ে এখন পর্যন্ত ৭২টি ম্যাচ খেলেছেন আর্থুর। এরমধ্যে ৪৭টি লিগ ম্যাচ, ১০টি কোপা দেল রের ম্যাচ এবং ১৩টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে মাঠে নামেন তিনি। দুই বছরের ক্যারিয়ারে ক্লাবের হয়ে করেছেন ৪টি গোল।

Comments

The Daily Star  | English

How Lucky got so lucky!

Laila Kaniz Lucky is the upazila parishad chairman of Narsingdi’s Raipura and a retired teacher of a government college.

6h ago