করোনা আপডেট: ফরিদপুর, ঝিনাইদহ, চাঁদপুর, ফেনী, পঞ্চগড়

ফরিদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৯৪ জনের করোনা শনাক্ত ও উপসর্গ নিয়ে দুজন মারা গেছেন। ঝিনাইদহে এক দিনে সর্বোচ্চ ২৭ জন, চাঁদপুরে আরও ৫১ জন, ফেনীতে নতুন ১৫ জন এবং পঞ্চগড়ে চিকিৎসক ও থানার ওসিসহ নতুন করে চার জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

ফরিদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৯৪ জনের করোনা শনাক্ত ও উপসর্গ নিয়ে দুজন মারা গেছেন। ঝিনাইদহে এক দিনে সর্বোচ্চ ২৭ জন, চাঁদপুরে আরও ৫১ জন, ফেনীতে নতুন ১৫ জন এবং পঞ্চগড়ে চিকিৎসক ও থানার ওসিসহ নতুন করে চার জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার দ্য ডেইলি স্টারের স্থানীয় সংবাদদাতারা এ সব তথ্য জানিয়েছেন।

ফরিদপুরে চিকিৎসক, পুলিশসহ আরও ৯৪ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত

ফরিদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় দুই চিকিৎসক, চার স্বাস্থ্যকর্মী ও ১০ পুলিশ সদস্যসহ আরও ৯৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত দুই হাজার ৬৫ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হলো।

আজ ফরিদপুরের সিভিল সার্জন মো. ছিদ্দীকুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, জেলায় নতুন করে দুই চিকিৎসক, চার স্বাস্থ্যকর্মী ও ১০ পুলিশ সদস্য ছাড়াও জজ কোর্টের চার কর্মচারী ও জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের দুই কর্মচারীর করোনা শনাক্ত হয়েছে।

ফরিদপুরে জ্বর, সর্দি, কাশিসহ করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বুধবার রাতে ফরিদপুর করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ওই দুজন মারা যান। তাদের একজন ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার ৫২ বছর বয়সী এক ব্যক্তি ও অপরজন ফরিদপুর শহরের গোয়ালচামট এলাকার ৯৪ বছরের এক বৃদ্ধ।

মৃত্যুর পর করোনা পরীক্ষার জন্য ওই দুই ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক সাইফুর রহমান।

ঝিনাইদহে এক দিনে সর্বোচ্চ ২৭ জনের করোনা শনাক্ত

ঝিনাইদহে আজ নতুন করে ২৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। জেলায় এক দিনে করোনা সংক্রমণের ঘটনা এটাই সর্বোচ্চ। ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম আজ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত ২৩৬ জনের করোনা শনাক্ত হলো। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৯৪ জন ও মারা গেছেন পাঁচ জন।

তিনি জানান, আজ জেলার ৯৩টি নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট এসেছে। তার মধ্যে ২৭টি রিপোর্ট পজিটিভ। নতুন শনাক্তদের মধ্যে ঝিনাইদহ সদরে নয় জন, কালীগঞ্জে ১৪ জন, শৈলকূপায় দুই জন, হরিণাকুণ্ড ও মহেশপুরে একজন করে আছেন।

চাঁদপুরে আরও ৫১ জনের করোনা শনাক্ত

চাঁদপুরে নতুন করে আরও ৫১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৯৭০ জন হলো।

আজ দুপুরে চাঁদপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো. সাখাওয়াত উল্লাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, আজ জেলার ৮৮ জনের করোনা পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়া গেছে, তার মধ্যে ৫১ জন পজিটিভ। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে চাঁদপুর সদর উপজেলায় ৩০ জন, হাজীগঞ্জে পাঁচ জন, ফরিদগঞ্জে নয় জন, মতলব দক্ষিণে পাঁচ জন ও হাইমচরে দুই জন আছেন।

জেলায় এ পর্যন্ত শনাক্ত ৯৭০ জনের মধ্যে ৬০ জন মারা গেছেন বলে জানান সিভিল সার্জন। এর মধ্যে চাঁদপুর সদর উপজেলায় মারা গেছেন ১৭ জন, ফরিদগঞ্জে সাত জন, হাজীগঞ্জে ১৬ জন, শাহরাস্তিতে চার জন, কচুয়ায় পাঁচ জন, মতলব উত্তরে আট জন ও মতলব দক্ষিণে তিন জন।

চাঁদপুরের হাইমচরে করোনা আক্রান্ত হয়ে এক ব্যবসায়ী মারা গেছেন। আজ সকাল ৮টায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। গতকাল বুধবার তার করোনা পরীক্ষার পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।

হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. বেলায়েত হোসেন বলেন, মৃত ব্যক্তি ডায়াবেটিস এবং শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। করোনা উপসর্গ থাকায় গত ২৭ জুন তার নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং গতকাল তার প্রতিবেদন পজিটিভ আসে। আজ সকালে শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে, তাকে চাঁদপুর সদর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

ফেনীতে আরও ১৫ জনের করোনা শনাক্ত

ফেনীতে নতুন করে আরও ১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮৬৭ জন। ফেনীর ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন এসএম মাসুদ রানা আজ দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, জেলায় নতুন আক্রান্ত ১৫ জনের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় আছেন সাত জন, সোনাগাজীতে দুই জন, ছাগলনাইয়ায় তিন জন, দাগনভূঁঞায় দুই জন ও পরশুরাম উপজেলায় একজন।

জেলায় এ পর্যন্ত শনাক্ত ৮৬৭ জনের মধ্যে ৫১৮ জন সুস্থ হয়েছেন এবং ১৭ জন মারা গেছেন বলেও জানান ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন।

পঞ্চগড়ে চিকিৎসক, ওসিসহ নতুন করে ৪ জনের করোনা শনাক্ত

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের এক চিকিৎসক, তেঁতুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি), ওসির স্ত্রী এবং পঞ্চগড় পৌর এলাকার ৪৮ বছর বয়সী এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়েছে। এই চার জনসহ জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৪৬ জন হলো।

আজ পঞ্চগড়ের সিভিল সার্জন মো. ফজলুর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, জেলায় নতুন শনাক্ত হওয়া এই চার জনের করোনা উপসর্গ দেখা দিলে, গত ২৯ জুন তাদের নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়। গতকাল রাতে তাদের নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন আসে। নমুনা দেওয়ার পর থেকেই তারা নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে আছেন।

স্বাস্থ্য বিভাগ আরও জানায়, পঞ্চগড় জেলা থেকে এখন পর্যন্ত মোট দুই হাজার ১৫৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে দুই হাজার ১১৯ জনের প্রতিবেদন পাওয়া গেছে, যার মধ্যে ১৪৬ জন পজিটিভ। এর মধ্যে এ পর্যন্ত ১২০ জন সুস্থ হয়েছেন তিন জন মারা গেছেন।

Comments