সারাদেশে ব্রডব্যান্ড সেবা বন্ধের হুঁশিয়ারি আইএসপিএবির

নানা ধাপের ভ্যাট আরোপ করায় গত একবছর ধরে নিজেদের অর্থ খরচ করে দেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা চালু রাখতে হয়েছে বলে দাবি করেছে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোশিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি)।

নানা ধাপের ভ্যাট আরোপ করায় গত একবছর ধরে নিজেদের অর্থ খরচ করে দেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা চালু রাখতে হয়েছে বলে দাবি করেছে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোশিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি)।

তারা বলছেন, চলতি জুলাই মাসের মধ্যে ভ্যাট জটিলতার সুরাহা না হলে আগস্ট থেকে সপ্তাহে একদিন এক থেকে দুই ঘণ্টার জন্যে সারা দেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেওয়া হবে।

শনিবার অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে আইএসপিএবি’র সভাপতি এম এ হাকিম বলেন, ‘এরপরেও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড যদি বিষয়টিতে মনযোগ না দেয়, তাহলে অতিরিক্ত খরচ গ্রাহকদের ওপর চাপিয়ে দেওয়া ছাড়া কোনো বিকল্প থাকবে না।’

‘আমরা জানি, ইন্টারনেট এখন মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় চাহিদার অংশ। সুতরাং গ্রাহকদের খরচ বাড়ানোর কোনো ইচ্ছা না থাকলেও আমাদের পিঠ দেওয়ালে ঠেকে গেছে,’ বলেন হাকিম।

তিনি বলেন, আগস্ট থেকে সপ্তাহে অন্তত একবার সারা দেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ রাখবেন এবং বিষয়টি তারা খুব গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করছেন।

সংবাদ সম্মেলনের আগে বিষয়টি নিয়ে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলকের সঙ্গেও আলাপ করেছেন বলে জানান তিনি।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক বলেন, যৌক্তিক দাবি না মানলে মূল্য বৃদ্ধি বা সেবার গুণগত মান কমিয়ে দেওয়া ছাড়া তাদের আর কোনো বিকল্পই থাকবে না।

সেক্ষেত্রে সেবা ঠিক রাখতে গেলে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত মূল্য বৃদ্ধি হবে বলেও জানান তিনি।

আইএসপিএবি বলছে, মূলত মাসে এক হাজার টাকার সেবা নেওয়া গ্রাহকই বেশি। ভ্যাট জটিলতার সমাধান না হলে এই সেবার মূল্য ১,৩০০ টাকায় পৌঁছাবে।

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে আইএসপি গ্রাহক পর্যায়ে ৫ শতাংশ ভ্যাট সংগ্রহ করলেও পাইকারি ব্যান্ডউইডথ কিনতে ১৫ শতাংশ এবং ব্যান্ডউইডথ ট্রান্সমিশনের জন্যে আরও ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট দিয়ে থাকেন।

আইএসপিএবি বলছে, ২০১৭-১৮ অর্থবছর পর্যন্ত তিনটি ধাপেই ১৫ শতাংশ ভ্যাট ছিল। ২০১৮-১৯ এ সরকার প্রথম সব পর্যায়ে ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করে। পরে সেটি গ্রাহক পর্যায়ে ৫ শতাংশ করে বাকিগুলো ১৫ শতাংশ করা হয়। আইএসপিএবির দাবি ভ্যাটের হার যেটিই নির্ধারণ করা হোক না কেনো সেটি যেন তিন পর্যায়েই সমান হয়।

এম এ হাকিম জানান, গত বছর থেকে তারা এটি সংশোধনের দাবি জানিয়ে আসছেন। গত ২৪ জুন এ বিষয়ে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ও অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোনো কিছুতেই কাজ না হওয়ায় তারা প্রতিবাদে নামছেন বলে জানান তিনি।

মে মাসের হিসেব পর্যন্ত দেশে ৮০ লাখ ৮৪ হাজার কার্যকর ব্রডব্যান্ড সংযোগ রয়েছে। যেখানে সব মিলিয়ে ব্যবহারকারী সাড়ে তিন কোটির মতো হবে বলেও ধারণা করছে আইএসপিএবি।

Comments

The Daily Star  | English

Recovering MP Azim’s body almost impossible: DB chief

Killers disfigured the body so much that it would be tough to identify those as human flesh

1h ago