তৃতীয় দিনেও এগিয়ে উইন্ডিজ

দুর্দান্ত বোলিংয়ে ইংলিশ অল্প রানে বেঁধে প্রথম ইনিংসে লিড নেওয়ার পথটা করে দিয়েছিলেন অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। সে সুযোগটা ভালোই কাজে লাগিয়েছেন ব্যাটসম্যানরা। ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ও শেন ডরউইচের ফিফটিতে প্রথম ইনিংসে ১১৪ রানের লিড পেয়েছে উইন্ডিজ। তবে দিন শেষে ইংলিশদের চেয়ে তারা এগিয়ে আছে ৯৯ রানে।
ছবি: এএফপি

দুর্দান্ত বোলিংয়ে ইংলিশ অল্প রানে বেঁধে প্রথম ইনিংসে লিড নেওয়ার পথটা করে দিয়েছিলেন অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। সে সুযোগটা ভালোই কাজে লাগিয়েছেন ব্যাটসম্যানরা। ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ও শেন ডরউইচের ফিফটিতে প্রথম ইনিংসে ১১৪ রানের লিড পেয়েছে উইন্ডিজ। তবে দিন শেষে ইংলিশদের চেয়ে তারা এগিয়ে আছে ৯৯ রানে।

উইন্ডিজের আশাটা অবশ্য জোরালো হয়েছে প্রথম ইনিংসে শতাধিক রানের লিড পাওয়ায়। কারণ প্রথম ইনিংসে ১০০ রানের বেশি লিড পেলে প্রায় সব ম্যাচেই জিতেছে দলটি। তবে হারও দেখেছে তিনটি টেস্টে। আর এর মধ্যে দুটিই আবার ইংলিশদের বিপক্ষে। সবশেষ ২০০০ সালে প্রথম ইনিংসে ১৩৩ রানের লিড নিয়েও এই ইংলিশদের কাছেই ২ উইকেটে হেরেছিল দলটি।

আর নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে এমন আভাসই দিচ্ছে ইংলিশরা। শুরুটা বেশ সাবধানে করেছে তারা। রোরি বার্নস ও ডমিনিক সিবলির ব্যাটে ১৫ রান তুলে কোনো উইকেট না হারিয়ে তৃতীয় দিন শেষ করে ইংল্যান্ড। বার্নস ১০ ও সিবলি ৫ রানে ব্যাট করছেন।

এর আগে গত দিনের এক উইকেটে ৫৭ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামা উইন্ডিজ স্বপ্ন দেখছিল দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ও শেই হোপের ব্যাটে। কারণ দুই ব্যাটসম্যানের জুটি মানেই  দলের জন্য দারুণ কিছু। সবশেষ পাঁচটির চারটিই ছিল পঞ্চাশোর্ধ্ব, দুটি শতাধিক। এদিন জুটি খুব লম্বা না করতে পারলেও হতাশ করেননি তারা। গড়েন ৫৯ রানের জুটি।

এরপর স্কোরবোর্ডে আর ৮৪ রান যোগ করতে টপ অর্ডারের চার উইকেট হারালে কিছুটা চাপে পড়ে যায় সফরকারীরা। তাতে শঙ্কা ছিল বড় লিড না পাওয়ার। তবে ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ৮১ রানের জুটি গড়ে দলকে বড় লিডের পথ দেখান ডরউইচ ও আলজেরি জোসেফ। তবে এ জুটি ভাঙলে ৫১ রানের ব্যবধানে শেষ পাঁচ উইকেট হারিয়ে ফেলে দলটি। ফলে প্রথম ইনিংসে ৩১৮ রান নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাদের।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৫ রান আসে ব্র্যাথওয়েটের ব্যাট থেকে। ৬১ রানের কার্যকরী একটি ইনিংস খেলেন ডরউইচও। এছাড়া রোস্টন চেজ করেন ৪৭ রান। ইংলিশদের পক্ষে ৪৯ রানের খরচায় ৪টি উইকেট নিয়ে দিনের সেরা বলার স্টোকস, জেমস অ্যান্ডারসন উইকেট নেন ৩টি। ২টি উইকেট পান ডোম বেস।

এদিন টেস্ট ক্রিকেটে ষষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে ৪০০০ হাজার রান ও ১৫০ উইকেট নেওয়ার মাইলফলক অর্জন করেন ইংলিশ অধিনায়ক স্টোকস। এর আগে গ্যারি সোবার্স, জ্যাক কালিস, ইয়ান বোথাম, কপিল দেব ও ড্যানিয়েল ভেট্টরি এ কীর্তি গড়েন। এর মধ্যে কেবল সোবার্সই স্টোকসের চেয়ে কম ৬৩ টেস্ট খেলে এ মাইলফলক স্পর্শ করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: (তৃতীয় দিন শেষে)

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ২০৪

উইন্ডিজ প্রথম ইনিংস: (আগের দিন ৫৭/১) ১০২ ওভারে ৩১৮ (ব্র্যাথওয়েট ৬৫, ক্যাম্পবেল ২৮, হোপ ১৬, ব্রুকস ৩৯, চেজ ৪৭, ব্ল্যাকউড ১২, ডরউইচ ৬১, হোল্ডার ৫, জোসেফ ১৮, রোচ ১*, গ্যাব্রিয়েল ৪; অ্যান্ডারসন ৩/৬২, আর্চার ০/৬১, উড ১/৭৪, স্টোকস ৪/৪৯, বেস ২/৫১)।

ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস: ১০ ওভারে ১৫/০ (বার্নস ১০, সিবলি ৫; রোচ ০/৬, গ্যাব্রিয়েল ০/৫, হোল্ডার ০/৪)।

Comments

The Daily Star  | English

AL govt closed down routes used for arms smuggling thru Bangladesh: PM

As a result, peace prevails in the seven sister states of India, she says

1h ago