রিজেন্টের সাহেদ কি মৌলভীবাজারে? সর্বত্র সতর্কতা

ঢাকার রিজেন্ট হাসপাতালে করোনা নমুনা পরীক্ষায় জালিয়াতি মামলার প্রধান আসামি মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিম মৌলভীবাজারে লুকিয়ে আছেন এমন সংবাদ গতকাল সোমবার বিকেল থেকে আলোচিত হচ্ছে। তবে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সাহেদের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।
রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ

ঢাকার রিজেন্ট হাসপাতালে করোনা নমুনা পরীক্ষায় জালিয়াতি মামলার প্রধান আসামি মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিম মৌলভীবাজারে লুকিয়ে আছেন এমন সংবাদ গতকাল সোমবার বিকেল থেকে আলোচিত হচ্ছে। তবে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সাহেদের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

প্রশাসনের বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, সারা সিলেট বিভাগের সঙ্গে ভারতের সীমান্ত থাকায় সব জায়গায় সতর্ক অবস্থানে আছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তবে সাহেদের অবস্থান নিয়ে নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। তার অবস্থান এই দিকেই আছে বলে অনেকে মন্তব্য করলেও কারো বক্তব্যে কোন সুনির্দিষ্ট তথ্য নেই। সীমান্ত এলাকা হওয়াতে সবাই সতর্ক রয়েছেন।

সোমবার বিকেল থেকে মৌলভীবাজারে সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে যে সাহেদ মৌলভীবাজারের সীমান্তবর্তী দুই উপজেলা শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জের কোথাও লুকিয়ে আছেন৷

র‌্যাব-৯ এর শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর আহমেদ নোমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘এই রকম কোনো তথ্য আমাদের কাছে নেই।’

শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ অরূপ কুমার চৌধুরী ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘তিনি (সাহেদ) এই দিকে আছেন এমন কোনো নির্দিষ্ট তথ্য নেই। এটি যেহেতু সীমান্ত এলাকা তাই সে এ দিক দিয়ে পালানোর চেষ্টা করতে পারে— এটা আমাদের সন্দেহ। সেই কারণেই আমরা অতিরিক্ত সতর্কতা গ্রহণ করেছি।’

মৌলভীবাজারের গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিনয় ভূষণ রায় ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘সাহেদ সীমান্ত এলাকায় অবস্থান করছে, এমন সংবাদ ছড়িয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে নিশ্চিত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।’

শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস ছালেক ডেইলি স্টারকে বলেছেন, ‘সাহেদের বিষয়ে নিশ্চিত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।’

মৌলভীবাজার জেলার পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘সাহেদ এখানে আছেন এই রকম সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য নেই। তবে আমরা সতর্ক আছি। এই সতর্কতার নির্দেশ সব জায়গায় দেওয়া আছে রুটিন ওয়ার্কের মতো।’

Comments

The Daily Star  | English
Impact of poverty on child marriages in Rasulpur

The child brides of Rasulpur

As Meem tended to the child, a group of girls around her age strolled past the yard.

13h ago