প্রবাসে

জাপানি গণমাধ্যমে বাংলাদেশের কোভিড-১৯ জাল সনদ বাণিজ্যের সংবাদ

দীর্ঘদিন পর জাপানের গণমাধ্যমে স্থান পেয়েছে বাংলাদেশ। প্রাকৃতিক দুর্যোগ, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা, হরতাল নিয়ে এতোদিন জাপানের মিডিয়াতে স্থান পেলেও এবার করোনা মহামারিতে ভুয়া সনদ বাণিজ্য নিয়ে শিরোনাম হয়েছে।
জাপানের মাইনিচি শিম্বুন পত্রিকায় বাংলাদেশের ভুয়া কোভিড-১৯ সনদ নিয়ে প্রতিবেদন।

দীর্ঘদিন পর জাপানের গণমাধ্যমে স্থান পেয়েছে বাংলাদেশ। প্রাকৃতিক দুর্যোগ, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা, হরতাল নিয়ে এতোদিন জাপানের মিডিয়াতে স্থান পেলেও এবার করোনা মহামারিতে ভুয়া সনদ বাণিজ্য নিয়ে শিরোনাম হয়েছে।

জাপানের অত্যন্ত প্রভাবশালী পত্রিকা ‘মাইনিচি শিম্বুন’ গতকাল (১৮ জুলাই) সংবাদ সংস্থা এপি’র বরাত দিয়ে স্থানীয় জাপানি ভাষায় করোনার ভুয়া সনদ দেওয়ার অভিযোগে স্থানীয় একটি হাসপাতালের কর্নধারকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী আটকের সংবাদ ছবিসহ প্রকাশ করে।

নাম উল্লেখ না করলেও প্রতারণার দায়ে র‍্যাব কর্তৃক রিজেন্ট হাসপাতালের কর্ণধার সাহেদ করিমের আটক এর ছবি প্রকাশ করে।

পত্রিকাটি লিখেছে, কোনো পরীক্ষা না করেই করোনার রিপোর্ট দিয়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেয় প্রতিষ্ঠানটি। সরকার নির্ধারিত বিনামূল্যে করোনা পরীক্ষা করানোর চুক্তি থাকলেও জনপ্রতি ৫,০০০ টাকা যা জাপানি ৬,২০০ ইয়েনের সমপরিমান অর্থ আদায় করা হয়। এভাবে হাসপাতালটি ৬,৩০০ ভুয়া সনদ প্রদান করে।

গত ১৭ জুলাই জাপানের কয়েকটি টিভি সংবাদ পর্যালোচনাতেও করোনা রিপোর্ট নিয়ে বাংলাদেশে বিভিন্ন প্রতারণার খবর স্থান পায়।

আলোচনায় করোনায় বাংলাদেশের সার্বিক অবস্থা তুলে ধরা হয়। স্থান পায় রিজেন্ট হাসপাতাল, সাহেদ করিম, জেকেজি এবং ডা. সাবরিনা প্রসঙ্গ। বিস্ময় প্রকাশ করা হয় নিউজ টকশোগুলোতে।

সচিত্র ওই প্রতিবেদন জাপানে বসবাসরত বাংলাদেশিদের জন্যে অত্যন্ত অসম্মানজনক বলে মন্তব্য করেছেন প্রবাসীরা।

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

Some government employees are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Centre has found.

7h ago