ইন্টারকে আমার শতভাগ দিয়েছি: লাউতারো মার্তিনেজ

চলতি মৌসুমের শুরুটা বেশ দারুণভাবেই করেছিলেন ইন্টার মিলানের আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড লাউতারো মার্তিনেজ। যদিও শেষ দিকে এসে সে ছন্দ ধরে রাখতে পারেননি। বিশেষকরে করোনাভাইরাসের কারণে অনাকাঙ্ক্ষিত বিরতির পর। ফলে ক্লাবকে ভুগতে হচ্ছে বেশ। তবে ক্লাবের জন্য নিজের শতভাগ দিয়েই লড়াই করেছেন বলে জানিয়েছেন এ ফরোয়ার্ড।
ফাইল ছবি: এএফপি

চলতি মৌসুমের শুরুটা বেশ দারুণভাবেই করেছিলেন ইন্টার মিলানের আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড লাউতারো মার্তিনেজ। যদিও শেষ দিকে এসে সে ছন্দ ধরে রাখতে পারেননি। বিশেষকরে করোনাভাইরাসের কারণে অনাকাঙ্ক্ষিত বিরতির পর। ফলে ক্লাবকে ভুগতে হচ্ছে বেশ। তবে ক্লাবের জন্য নিজের শতভাগ দিয়েই লড়াই করেছেন বলে জানিয়েছেন এ ফরোয়ার্ড।

চলতি মৌসুমে লাউতারোর বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার গুঞ্জন চড়া। যদিও ইন্টার তাকে ছাড়তে চাইছে না। ধারণা করা হচ্ছে তারই প্রভাব পড়েছে তার খেলায়। তবে এ সব ধরণের গুঞ্জন নাকচ করে দিয়েছেন তিনি। নিজের শতভাগ দিয়েই খেলেছেন বলে জানান এ আর্জেন্টাইন। ফিওরেন্টিনার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে লাউতারো বললেন, 'আমি সবসময় ক্লাবকে ১১০ ভাগ দেওয়ার চেষ্টা করেছি, যারা খেলা দেখতে পছন্দ করেন এবং ইন্টারের জার্সিকে।'

গত মৌসুমে স্বদেশী মাউরো ইকার্দি ক্লাব ছাড়ার পর ইন্টারের মূল ফরোয়ার্ডের দায়িত্ব পালন করছেন লাউতারো। সানসিরোতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে আনা রোমেলু লুকাকুর সঙ্গে তার জুটিটাও জমে উঠেছে বেশ। নেরারুজ্জিদের জার্সিতে চলতি মৌসুমে এখন পর্যন্ত ৩১টি ম্যাচ খেলেছেন লাউতারো। তাতে ১৩টি গোলের দেখা পেয়েছেন তিনি। পাঁচটি গোলে সহায়তাও করেছেন তিনি। সমর্থকদের জন্যই খেলেন বলে জানান এ তরুণ, 'আমি এখন একজন ছেলে যে সবসময় লড়াই করি।'

এছাড়া কোচ অ্যান্তনিও কন্তের উচ্ছ্বসিত প্রশংসাও করেছেন লাউতারো, 'আমি নিজের গোলগুলো দলের জন্য এবং ক্লাবের সমর্থকদের আনন্দের জন্য। কন্তে আমাকে আত্মবিশ্বাস দিয়েছে। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রাথমিক বিষয়। কারণ সে প্রত্যেক খেলোয়াড়ের মানসিক বিষয় বিবেচনা করে কাজ করে। আমি এটার খুব প্রশংসা করি, প্রতিদিনই তিনি আমাদের এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।'

Comments

The Daily Star  | English

‘Will implement Teesta project with help from India’

Prime Minister Sheikh Hasina has said her government will implement the Teesta project with assistance from India and it has got assurances from the neighbouring country in this regard.

4h ago