রান না পেলেই ক্যারিয়ার শেষ, এমনটা ভেবে নেমেছিলেন বাটলার

পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যানচেস্টারে রান তাড়ায় দলের বিপর্যয়ে নেমে বাটলার খেলেছেন ১০১ বলে ৭৫ রানের ইনিংস।
jos buttler
ছবি: এএফপি

টানা রান খরার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এক ইনিংসে রান পেয়েছিলেন জস বাটলার। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে আবার ব্যর্থ। ব্যাট হাতে ধারবাহিকতার অভাবের সঙ্গে উইকেটের পেছনে হাত ফসকে বেরুচ্ছিল ক্যাচ, হাতছাড়া করছিলেন স্টাম্পিংয়ের সুযোগ। বাটলার সামনে দেখতে পাচ্ছিলেন বিদায়ের পথ। ভীষণ দরকারি সময়ে নেমে ম্যাচ জেতানো ৭৫ রানের ইনিংস খেলার পর জানালেন, নিজেই টের পাচ্ছিলেন কতটা খাদের কিনারে দাঁড়িয়ে তিনি।

পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যানচেস্টারে রান তাড়ায় দলের বিপর্যয়ে নেমে বাটলার খেলেছেন ১০১ বলে ৭৫ রানের ইনিংস।

২৭৭ রান তাড়ায় গিয়ে ১১৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। সেই অবস্থা থেকে ক্রিস ওকসের সঙ্গে ১৩৯ রানের জুটিতে দলকে নিয়ে যান জেতার একদম কাছে।

শেষ পর্যন্ত এই জুটির ফলেই ৩ উইকেটে ম্যাচ জিতে সিরিজে এগিয়ে গেছে তার দল। ম্যাচ শেষে বললেন দলের চাপের সঙ্গে ব্যক্তিগত ক্যারিয়ার বাঁচানোর তুমুল চাপে ছিলেন তিনি,   ‘আমার মাথায় ঘুরছিল, এবার রান না পেলেও এটা সম্ভবত হতে যাচ্ছে আমার শেষ টেস্ট। তবে খেলার সময় এসব ভাবনা চাপা নিয়েই পরিস্থিতিতে মনোযোগ দিতে হয়। এটা করতে পারায় আমি তৃপ্ত।’               

প্রথম ইনিংসে উইকেটের পেছনে পাকিস্তানি ওপেনার শান মাসুদকে দুবার জীবন দেন বাটলার। ৪৫ রানে জীবন পাওয়া মাসুদ পরে খেলেন ১৫৬ রানের ইনিংস। এই ভুলে ম্যাচটাই হাতছাড়া করতে বসেছিল ইংল্যান্ড। ব্যাটিংয়ে রান পেলেও তাই উদ্বেগের জায়গা হয়ে থাকছে তার কিপিং গ্লাভস,  ‘হ্যাঁ, সুযোগগুলো নিতে পারলে আরও ঘণ্টা দুয়েক আগেই জিতে যেতাম আমরা। আমি ভালো কিপিং করিনি, অকপটে বলছি। এই পর্যায়ে যা করা যায় না, তেমন সুযোগ হাতছাড়া করেছি। ব্যাট হাতে রান পেলেও এই জায়গায় আমাকে ভাল করতে হবে।’

Comments

The Daily Star  | English

Battery-run rickshaw drivers set fire to police box in Kalshi

Battery-run rickshaw drivers set fire to a police box in the Kalshi area this evening following a clash with law enforcers in Mirpur-10 area

18m ago