শ্রীলঙ্কা সফরে সাকিবের ফেরার সম্ভাবনা কতটুকু?

দেশ সেরা এই ক্রিকেটারের লঙ্কা সফরের একটা অংশে খেলার সম্ভাবনা নিয়ে তাই আলোচনা শুরু করেছে বিসিবি।
Shakib Al Hasan
সাকিব আল হাসান। ছবি: ফিরোজ আহমেদ

শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশের সিরিজ শুরু হবে ২৪ অক্টোবর। তার পাঁচদিন পরই সব ধরণের ক্রিকেটের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মুক্ত হবেন সাকিব আল হাসান। দেশ সেরা এই ক্রিকেটারের লঙ্কা সফরের একটা অংশে খেলার সম্ভাবনা নিয়ে তাই আলোচনা শুরু করেছে বিসিবি।

বুধবার সভা শেষে এমন কথা জানিয়েছেন দুই বিসিবি পরিচালক আকরাম খান ও নাঈমুর রহমান দুর্জয়।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত মার্চ মাস থেকেই স্থবির সময় পার করছে বাংলাদেশের ক্রিকেট। লম্বা সময়ের এই স্থবিরতা পার করে শ্রীলঙ্কা সফর দিয়েই ক্রিকেটের ফেরার ছক করে ফেলেছে বিসিবি।

নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ায় বাংলাদেশ দল যখন শ্রীলঙ্কায় খেলবে তখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে কোন বাধা থাকবে না সাকিবের।

ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান  আকরাম জানান, বাস্তবিক অর্থে লঙ্কা সফরে সাকিবের ফেরা নিয়ে আলাপও শুরু করে দিয়েছেন তারা, ‘সাকিবের ব্যাপারটা নিয়ে আমরা কথাবার্তা বলেছি। আরও আলোচনার বিষয় আছে। মানে কি কি নিয়ম আছে, আইসিসি থেকে সেটা আমরা জেনে তারপরেই এগোব। সে মুক্ত হবে ২৯ অক্টোবর।’

আকরাম জানালেন, সার্বিক চিত্র তারা আজকের সভায় খতিয়ে দেখেছেন। কিন্তু চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে সাকিব, টিম ম্যানেজমেন্ট ও বোর্ড সভাপতির মতামতের উপর,  ‘আমরা যতটুকু জানি, সে দলের সঙ্গে অনুশীলন করতে পারবে না। সুতরাং এটা আমাদের আলোচনা করতে হবে কোচের সঙ্গে, সাকিবের সঙ্গে। বোর্ড সভাপতির সঙ্গেও আলাপ করতে হবে। আলাপ হয়েছে আজ, কিন্তু চূড়ান্ত কোন জায়গায় পৌঁছাইনি।’

তবে সব কিছু মিলে গেলে শ্রীলঙ্কা সফরে সাকিবকে খেলানোর ব্যাপারে ইতিবাচক আভাস দিয়ে রাখলেন আকরাম, ‘অবশ্যই সে আমাদের অনেক গুরুত্বপূর্ণ একজন খেলোয়াড়। সে দলে থাকলে বাংলাদেশের শক্তি অনেক বেড়ে যায়। সুতরাং এটাতো আমাদের মাথায় আছে।’

আরেক বোর্ড পরিচালক নাঈমুর জানান, দীর্ঘদিন খেলার বাইরে থাকা সাকিবের ফিটনেস দেখে তবেই সিদ্ধান্ত নিতে চান তারা, ‘সাকিবের ফিটনেস লেভেল কোন পর্যায়ে, সেটা দেখতে হবে। কোচ, অধিনায়ক, নির্বাচকদের মতামত নিতে হবে। বোর্ডের সিদ্ধান্তের ব্যাপার। সবকিছু মিলিয়ে আসলে সিদ্ধান্তটা নিতে হবে।’

জুয়াড়ির প্রস্তাব তিনবার গোপন করায় গত বছরের ২৯ অক্টোবর এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন সাকিব। তার নিষেধাজ্ঞার সময়ে বাংলাদেশ ভারতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলে আসার পর দেশে আফগানিস্তান ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ খেলেছে। করোনা মহামারির কারণে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড সিরিজ স্থগিত হয়ে যায়। পিছিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা সিরিজ। স্থগিত হয় বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপও। এক বছর নিষিদ্ধ থাকলেও তাই খুব বেশি ম্যাচ হাতছাড়া হচ্ছে না সাকিবের।

Comments

The Daily Star  | English

Hiring begins with bribery

UN independent experts say Bangladeshi workers pay up to 8 times for migration alone due to corruption of Malaysia ministries, Bangladesh mission and syndicates

1h ago