রাজধানীতে ৫৭ লাখ টাকার জাল নোটসহ প্রতারক চক্রের ৫ সদস্য গ্রেপ্তার

রাজধানীর পল্টন এলাকা থেকে জাল নোট ছাপিয়ে বিক্রি করা প্রতারক চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। এ সময় তাদের কাছ থেকে প্রায় ৫৭ লাখ টাকার জাল নোট, পাঁচ থেকে ছয় কোটি টাকার জাল নোট ছাপানোর উপকরণ ও প্রিন্টার জব্দ করা হয়।
ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর পল্টন এলাকা থেকে জাল নোট ছাপিয়ে বিক্রি করা প্রতারক চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। এ সময় তাদের কাছ থেকে প্রায় ৫৭ লাখ টাকার জাল নোট, পাঁচ থেকে ছয় কোটি টাকার জাল নোট ছাপানোর উপকরণ ও প্রিন্টার জব্দ করা হয়।

আজ শুক্রবার বিকেল সাড়ে তিনটা থেকে সাড়ে চারটা পর্যন্ত ডিবি পুলিশের এক অভিযানে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নোট ছাপানোর বিশেষজ্ঞ মো. হান্নান, কাগজ প্রস্তুতে বিশেষজ্ঞ কাওসার, হিসাব রক্ষক মো. আরিফ, দুই সরবরাহকারী ইব্রাহিম ও খুশি।

ডিবি পুলিশের উপকমিশনার মশিউর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মশিউর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘ঈদের আগে এই চক্রের ওপর আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নজরদারি বাড়ানোর ফলে তারা আত্মগোপনে ছিল। ঈদের পর তাদের তৎপরতা বেড়েছে।’

এই চক্রটি আগামী ছয় মাসের জন্য রাজধানীর পল্টন এলাকায় দুটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছে এবং প্রতিদিন প্রায় পাঁচ লাখ টাকার জাল নোট তৈরি করছিল বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, চক্রটি সম্প্রতি রাজধানীর শনির আখড়া, যাত্রাবাড়ী এবং সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় এ সব জাল নোট বিক্রি শুরু করেছিল। এক লাখ টাকার জাল নোট নয় থেকে ১৩ হাজার টাকায় বিক্রি করত।

পুলিশ কর্মকর্তা মশিউর বলেন, ‘এই চক্র চালাতে অর্থের যোগান দিত শাহীন নামের এক ব্যক্তি। এর আগে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। বেশ কয়েকটি মামলায় তিনি অভিযুক্ত।’

এই চক্রের গ্রেপ্তারকৃত অন্যদের নামেও বিভিন্ন থানায় মামলা আছে বলেও জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘তাদের পরিকল্পনা ছিল দেশের বিভিন্ন জেলায় জাল নোট ছড়িয়ে দেশের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা নষ্ট করা। এই চক্রের সঙ্গে জড়িত আরও কয়েকজনের নাম পাওয়া গেছে এবং তাদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।’

Comments