বেঞ্চে থাকবেন, তবু বার্সা ছাড়বেন না সুয়ারেজ

বার্সেলোনা তারকা লুইস সুয়ারেজ যেভাবেই হোক স্প্যানিশ ক্লাবটিতে থাকতে মরিয়া।
luis suarez
ছবি: এএফপি

বার্সেলোনা তারকা লুইস সুয়ারেজ যেভাবেই হোক স্প্যানিশ ক্লাবটিতে থাকতে মরিয়া। মূল একাদশ থেকে ছেঁটে বেঞ্চে জায়গা দেওয়া হলেও আপত্তি তুলবেন না বলে জানিয়েছেন এই উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার।

মাঠে ও মাঠের বাইরে কঠিন সময় পার করা কাতালান দলটির সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ কিছুদিন আগে জানান, চলমান গ্রীষ্মকালীন দলবদলের মৌসুমে বার্সায় অনেক পরিবর্তন আনা হবে। যার অর্থ, ক্লাবটির বেশ কয়েকজন কিংবদন্তি খেলোয়াড়কে বিদায় জানিয়ে দেওয়ার আভাস দেন তিনি।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলের বিব্রতকর হারের পর বার্তোমেউ মাত্র সাত ফুটবলারের নাম উল্লেখ করেন, যাদেরকে দল ছাড়তে দেওয়া হবে না। কিন্তু সেই তালিকায় ছিলেন না বার্সার ইতিহাসের তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা সুয়ারেজ।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের কাছে বার্তোমেউ বলেছিলেন, ‘কে বিক্রির জন্য নয়? লিওনেল মেসি। এটা সে জানে। সে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়। (মার্ক-আন্দ্রে) টের স্টেগেন, (নেলসন) সেমেদো, (ফ্রেঙ্কি) ডি ইয়ং, (ক্লেমোঁ) লংলে, (ওসমানে) দেম্বেলে, (আতোয়াঁন) গ্রিজমানকে নিয়ে আমরা একই কথা ভাবছি (বিক্রির জন্য নয়)।’

দায়িত্ব গ্রহণ করার পর বার্সার নতুন কোচ রোনাল্ড কোমানও নিজের প্রথম সংবাদ সম্মেলনে মূল স্কোয়াডে পরিবর্তন আনার পরিকল্পনার কথা জানান। তিনি বলেছিলেন, ‘আমি (দল থেকে বাদ দিতে চাই এমন কারও) নাম উল্লেখ করতে চাই না। তবে সম্ভাব্য সবচেয়ে শক্তিশালী স্কোয়াড গঠন করতে যা যা করা করা প্রয়োজন, সেসবের সন্ধান করতে হবে আমাদের। ক্লাব ও দলের জন্য সর্বোচ্চটা করার চেষ্টা করতে হবে। 

ক্যারিয়ারের সেরা সময় পেছনে ফেলে আসা সুয়ারেজের মতে, ক্লাব যদি তাকে ছেড়ে দিতে চায়, তাহলে সেটা সরাসরি বলা উচিত। আর যতক্ষণ পর্যন্ত না এমন কিছু ঘটছে, ততক্ষণ তিনি ক্যাম্প ন্যুতে নিজের ভবিষ্যতের জন্য লড়াই করে যাবেন।

ছবি: এএফপি

শনিবার স্প্যানিশ গণমাধ্যম এল পাইসকে তিনি বলেছেন, ‘সভাপতি যে নামগুলো উল্লেখ করেছেন এবং যে পরিবর্তনগুলো সামনে ঘটতে পারে, সেসব নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। তবে ক্লাবের কেউ এখনও আমাকে বলেনি যে, তারা আমাকে চায় না।’

বার্সায় থাকার তীব্র আগ্রহ প্রকাশ করে সুয়ারেজ যোগ করেছেন, ‘যদি ক্লাব এটাই চায় (আমাকে দলে না রাখতে), তবে সিদ্ধান্তগ্রহণকারীদের উচিত সরাসরি তা আমাকে জানিয়ে দেওয়া। কারণ, (গণমাধ্যমে) নাম ফাঁস হওয়ার চেয়ে এটা ভালো। আমি দলের জন্য সেরাটা চাই এবং আমার লক্ষ্য হলো এখানে থাকা।’

মূল একাদশে স্থান না পেলে বা বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামতে হলেও সমস্যা দেখছেন না তিনি, ‘গোটা ক্যারিয়ারে যখনই বেঞ্চে থাকতে হয়েছে, আমি মেনে নিয়েছি। আমি এখনও মনে করি, আমার অনেক কিছু দেওয়ার আছে। তবে পরের মৌসুমে যদি এমনটা ঘটে (বেঞ্চে বসে থাকতে হয়), তাহলে আমার কোনো সমস্যা নেই।’

কোমানের সিদ্ধান্তকে সম্মান করার কথাও জানিয়েছেন সুয়ারেজ, ‘(মূল একাদশে) জায়গা পাওয়ার প্রতিযোগিতা স্বাস্থ্যকর এবং যদি নতুন কোচ মনে করেন, আমার বদলি হিসেবে খেলা উচিত, তাতে আমার সমস্যা হবে না।’

যারা তার শেষ দেখে ফেলেছেন তাদের উদ্দেশ্যে অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার বলেছেন, ‘আমি তুলনা করতে পছন্দ করি না। তবে আমার মনে আছে, আয়াক্স আমস্টারডাম যখন রিয়াল মাদ্রিদকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে দিয়েছিল (গেল মৌসুমে), তখন লোকেরা বলেছিল, (টনি) ক্রুস শেষ হয়ে গেছে, (সার্জিও) রামোস পুরোপুরি ব্যর্থ এবং তারা (লুকা) মদ্রিচের অবসর চেয়েছিল।’

রামোস-ক্রুস-মদ্রিচদের উদাহরণ টেনে আকারে-ইঙ্গিতে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেছেন সুয়ারেজ, ‘তারপর, এই মৌসুমে, সবকিছু আগের চেয়ে ভালো হয়েছে। তারা আবারও আলো ছড়িয়েছেন এবং তারা একটা কিংবদন্তি দলের অংশ। অবশ্যই তারা আগেও ভালো দল ছিল, এখনও ভালো দল। হেরে গেলে প্রত্যেকেই আপনার সমালোচনা করবে।’

আগামী ২০২১ সাল পর্যন্ত বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তি রয়েছে ৩৩ বছর বয়সী সুয়ারেজের।

Comments

The Daily Star  | English
Impact of poverty on child marriages in Rasulpur

The child brides of Rasulpur

As Meem tended to the child, a group of girls around her age strolled past the yard.

12h ago