ক্রলি-বাটলারের দাপটের পর অ্যান্ডারসনের তোপ, বেকায়দায় পাকিস্তান

শেষ বিকালে ব্যাট করতে গিয়ে জেমস অ্যান্ডারসনের তোপে বেকায়দায় পাকিস্তান।
ছবি: রয়টার্স

আগের দিনে ডাবল সেঞ্চুরির আশায় থাকায় জ্যাক ক্রলি নিজের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিকে ছাড়িয়ে নিলেন আড়াইশ। সেঞ্চুরির অপেক্ষায় থাকা জস বাটলার খেললেন দেড়শো পেরুনো ইনিংস। দুজনের জুটিতে হলো রেকর্ড। স্বাভাবিকভাবেই রানের পাহাড়ে চড়ল ইংল্যান্ড। শেষ বিকালে ব্যাট করতে গিয়ে জেমস অ্যান্ডারসনের তোপে বেকায়দায় পাকিস্তান।

সাউদাম্পটনে তৃতীয় ও শেষ টেস্টের দ্বিতীয় দিনও পুরোপুরি ইংল্যান্ডের দখলে। ৮ উইকেটে ৫৮৩ রান করে স্বাগতিকরা ইনিংস ছেড়ে দেওয়ার পর ২৪ রানে ৩ টপ অর্ডারকে হারিয়ে দিন শেষ করেছে সফরকারীরা। দলের চরম বিপর্যয়ে ৪ রানে অপরাজিত আছেন অধিনায়ক আজহার আলি।

প্রথম দিন যেখানে থেমেছিলেন দ্বিতীয় দিনে যেন সেখান থেকেই শুরু ক্রলি - বাটলারের। প্রথম সেশনেই এই দুজনকে টলাতে পারেনি পাকিস্তানিরা। ক্রলি নিজের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিকে রূপ দেন ডাবল সেঞ্চুরিতে। তার আগেই সেঞ্চুরির দেখা পেয়ে যান বাটলার।

পঞ্চম উইকেটে তাদের জুটি ছাড়িয়ে যায় সাড়ে তিনশো। সমৃদ্ধ ক্রিকেট ইতিহাসেও পঞ্চম উইকেটে ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ রানের জুটি এটি। এদিকে আড়াইশো পেরিয়ে ট্রিপল সেঞ্চুরি সম্ভাবনাও জাগিয়ে তুলে ফেলেছিলেন ক্রলি। তবে তাদের ৩৫৯ রানের বিশাল জুটি শেষ পর্যন্ত ভাঙে  অনিয়মিত বোলার আসাদ শফিকের বলে। এলবিডব্লিওতে ফিরে যাওয়ার ৩৯৩ বল খেলে ৩৪ চার, ২ ছক্কায় ২৬৭ করে ফেলেন ক্রলি।

আরেক অনিয়মিত বোলার ফাওয়াদ আলমকে ক্যাচ দিয়ে থামেন ১৫২ রান করা বাটলার।  পরে ক্রিস ওকস, ডম বেস আর স্টুয়ার্ট ব্রডের ছোট তিন ইনিংসে ইংল্যান্ডে পৌঁছে যায় ছয়শো কাছাকাছি।

শেষ বিকেলে পাকিস্তানকে অন্তত ১০-১২ ওভার খেলতে দিয়ে বিপাকে ফেলার পরিকল্পনা ছিল ইংল্যান্ডের। তারা খাপে খাপে করতে পেরেছে তা।

ইতিহাসের প্রথম পেসার হিসেবে ছয়শ টেস্ট উইকেটের একদম কাছে চলে যাওয়া অ্যান্ডারসনই পাক ব্যাটসম্যানদের একমাত্র হন্তারক। উইকেটের সোজা বল ফেলে একটু ভেতরে ঢুকিয়ে কাবু করেন শান মাসুদকে। রিভিউ নিয়েও রক্ষা হয়নি তার। অ্যান্ডারসনের স্যুয়িংয়ে আবিদ আলি ক্যাচ দেন স্লিপে। যাকে নিয়ে সবচেয়ে বেশি আশা সেই বাবর আজমও কিছু করতে পারেননি। আরও একবার হতাশ করেছেন তিনি। অ্যান্ডারসনের আচমকা ভেতরে ঢোকা বল গিয়ে ছোবল হাতে তার প্যাডে। ওই আউটের পরই থেমে যায় দিনের খেলা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

(দ্বিতীয় দিন শেষে)

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ১৫৪.৪ ওভারে ৫৯৩/৮ (ইনিংস ঘোষণা) (বার্নস ৬, সিবলি ২২, ক্রলি ২৬৭*, রুট ২৯, পোপ ৩, বাটলার ১৫২, ওকস ৪০, বেস ২৭*, ব্রড ১৫; আফ্রিদি ২/১২১, আব্বাস ০/৮২, ইয়াসির ২/১৭৩, নাসিম ১/১০৯, ফাওয়াদ ২/৪৬, শান ০/১১, আসাদ ১/২৪)

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস: ১০.৫ ওভারে ২৪/৩  (শান ৪, আবিদ ১, আজহার ব্যাটিং ৪* , বাবর ১১; অ্যান্ডারসন ৩/১৩, ব্রড ০/৬, আর্চার ০/৩)

Comments

The Daily Star  | English
 foreign serial

Iran-Israel tensions: Dhaka wants peace in Middle East

Saying that Bangladesh does not want war in the Middle East, Foreign Minister Hasan Mahmud urged the international community to help de-escalate tensions between Iran and Israel

10h ago