ইন্দোনেশিয়াকে ৩৭ কোটি ডোজ করোনা ভ্যাকসিন দেবে চীন ও আমিরাত

২০২১ সালের জন্য চীন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে সম্ভাব্য করোনা ভ্যাকসিনের ৩৪০ মিলিয়ন ডোজ সরবরাহ নিশ্চিত করেছে ইন্দোনেশিয়া।
ছবি: দ্য স্ট্রেইট টাইমস

২০২১ সালের জন্য চীন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে সম্ভাব্য করোনা ভ্যাকসিনের ৩৪০ মিলিয়ন ডোজ সরবরাহ নিশ্চিত করেছে ইন্দোনেশিয়া।

জাকার্তা গ্লোব জানায়, তাত্ক্ষণিক প্রয়োজন মেটানোর জন্য ইন্দোনেশিয়াকে এ বছরই ৩০ মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

সোমবার, দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেতনো মারসুদি ও ‘কোভিড -১৯ মোকাবিলা ও জাতীয় অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার কমিটির কার্যনির্বাহী চেয়ারম্যান এরিক থোহির এক সফর শেষে এ কথা জানান।

সোমবার, প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোডোর নেতৃত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে রেতনো বলেন, ‘আমরা দুজনই আজ সকালে চীন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে আমাদের সাম্প্রতিক সফর সম্পর্কে প্রেসিডেন্টকে জানিয়েছি। আমাদের দিক থেকে, এই সফরটি বেশ ফলপ্রসূ হয়েছে।’

রেতনো আরও বলেন, ‘দুই দেশের সফর শেষে আমরা নিশ্চিত করতে পারি যে, এই বছরের জন্য ২০ মিলিয়ন থেকে ৩০ মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহ জন্য তারা আমাদেরকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। পাশাপাশি, ২০২১ সালের জন্য ২২০ মিলিয়ন থেকে ৩৪০ মিলিয়ন ডোজ সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।’

রেতনো জানান, কোভিড -১৯ এর সম্ভাব্য ভ্যাকসিন ২৬০ মিলিয়নেরও বেশি মানুষের জন্য পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত করতে সরকার স্বল্পমেয়াদি ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করেছে।

তিনি বলেন, ‘এখন আমাদের মনোযোগ স্বল্পমেয়াদি লক্ষ্যগুলোতে।’

বর্তমানে ইন্দোনেশিয়ায় চীনের সিনোভ্যাক বায়োটেকের তৈরি সম্ভাব্য কোভিড-১৯ সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের ক্লিনিকাল ট্রায়াল চলছে। পশ্চিম জাভার রাজধানী বান্দুংয়ে প্রায় ১ হাজার ৬০০ স্বেচ্ছাসেবীর উপর এই ট্রায়াল চালানো হচ্ছে।

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারির মধ্যে গণহারে করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু করার লক্ষ্যে কাজ করছে ইন্দোনেশিয়া সরকার।

জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার পর্যন্ত ইন্দোনেশিয়ায় মোট করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ৫৭ হাজারেরও বেশি মানুষ। করোনায় মারা গেছেন ৬ হাজার ৮৫৮ জন। 

Comments

The Daily Star  | English

New School Curriculum: Implementation limps along

One and a half years after it was launched, implementation of the new curriculum at schools is still in a shambles as the authorities are yet to finalise a method of evaluating the students.

29m ago