দেশের ৩১ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের ৩১টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করেছেন। একই সঙ্গে তিনি নব নির্মিত দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ১১টি গ্রিড সাব স্টেশন ও ছয়টি সঞ্চালন লাইনেরও উদ্বোধন করেন।
ভার্চুয়াল কনফারেন্সের মাধ্যমে ১৮টি জেলার ৩১টি উপজেলার শতভাগ বিদ্যুতায়ন, দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ১১টি গ্রিড সাব স্টেশন ও ছয়টি নতুন সঞ্চালন লাইনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিআইডি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের ৩১টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করেছেন। একই সঙ্গে তিনি নব নির্মিত দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ১১টি গ্রিড সাব স্টেশন ও ছয়টি সঞ্চালন লাইনেরও উদ্বোধন করেন।

প্রধানমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার সকালে গণভবন থেকে ভার্চুয়াল কনফারেন্সের মাধ্যমে ১৮টি জেলার ৩১টি উপজেলার শতভাগ বিদ্যুতায়ন, দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ১১টি গ্রিড সাব স্টেশন ও ছয়টি নতুন সঞ্চালন লাইনের উদ্বোধন করেন।

শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় এসেছে ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলার নবীনগর, সরাইল ও আশুগঞ্জ, চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ ও কচুয়া, কুমিল্লা জেলার বরুড়া ও মুরাদনগর, ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা ও বোয়ালমারি, গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লাপুর, ঝিনাইদহ জেলার ঝিনাইদহ সদর, মানিকগঞ্জ জেলার মানিকগঞ্জ সদর, দৌলতপুর, সিংগাইর ও শিবালয়, মৌলভিবাজার জেলার রাজনগর, মান্দা, ধামৈরহাট, নওগাঁ জেলার শাপাহার, নীলফামারি জেলার ডোমার, নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ, পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ, রাজবাড়ী জেলার রাজবাড়ী সদর, পাংশা ও বালিয়াকান্দী, রাজশাহী জেলার বাগমারা, সাতক্ষীরা জেলার সাতক্ষীরা সদর, সিলেট জেলার জকিগঞ্জ ও ওসমানী নগর, নরসিংদী জেলার রায়পুরা এবং মাদারীপুরের কালকিনী।

এছাড়াও কনফিডেন্স পাওয়ার বগুড়া-১ লিমিটেডের ১১০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র এবং নোয়াখালীর এইচএফ পাওয়ার লিমিটেডের ১১৩ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র দুটি উদ্বোধন করেছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী জাতীয় বিদ্যুৎ সঞ্চালন নেটওয়ার্ক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় মহাস্থানগড় ১৩২/৩৩ কেভি, রাজশাহী (উত্তর) ১৩২/৩৩ কেভি, চৌদ্দগ্রাম ১৩২/৩৩ কেভি, ভালুকা ১৩২/৩৩ কেভি, বেনাপোল ১৩২/৩৩ কেভি এবং শরীয়তপুর ১৩২/৩৩ কেভি সাব স্টেশন উদ্বোধন করেন।

৪০০/২৩০/১৩ কেভি গ্রিড নেটওয়ার্ক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় শ্যামপুর ২৩০/১৩২ কেভি সাব স্টেশন, পল্লী বিদ্যুতায়ন প্রকল্পের আওতায় গ্রিড সাবস্টেশন এবং সঞ্চালন জোরদারকরণ প্রকল্পের আওতায় শেরপুর ১৩২/৩ কেভি ও কুড়িগ্রাম ১৩২/৩৩ কেভি, পল্লী বিদ্যুতায়ন প্রকল্পের আওতায় নড়াইল ১৩২/৩৩ কেভি এবং রাজেন্দ্রপুর ১৩২/৩৩ কেভি জিআইএস (গ্যাস ইনসুলেইটেড সুইসগিয়ার) প্রকল্পের আওতায় রাজেন্দ্রপুর ১৩২/৩৩ সাব-স্টেশন নির্মাণ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী যে ছয়টি সঞ্চালন লাইনের উদ্বোধন করেন সেগুলো হলো- পটুয়াখালী (পায়রা)-গোপালগঞ্জ ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইন, যশোর-বেনাপোল ১৩২ কেভি সঞ্চালন লাইন, শরীয়তপুর-মাদারীপুর ১৩২ কেভি সঞ্চালন লাইন, তিস্তা-কুড়িগ্রাম ১৩২ কেভি সঞ্চালন লাইন, মাগুরা-নড়াইল ১৩২ কেভি সঞ্চালন লাইন এবং পটুয়াখালী-পায়রা ২৩০ কেভি সঞ্চালন লাইন।

বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ তার মন্ত্রণালয়ের কার্যালয় থেকে এই অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

এসময় বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব ড. সুলতান আহমেদ বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয় থেকে ‘বাংলাদেশে বিদ্যুৎ খাত: বঙ্গবন্ধু থেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা’ শীর্ষক একটি তথ্যচিত্র উপস্থাপন করেন।

অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নের ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্রও প্রদর্শিত হয়।

মন্ত্রণালয় সূত্রে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী এর আগে ২৫৭টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করেছেন। আর আজকের ৩১টি উপজেলা উদ্বোধনের পর মোট ২৮৮টি উপজেলা শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় এসেছে।

সূত্র আরও জানায়, দেশ এখন ২৩ হাজার ৫৪৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম হওয়ায় ইতিমধ্যে ৯৭ শতাংশ মানুষ বিদ্যুতের আওতায় এসেছে।

Comments

The Daily Star  | English
The forgotten female footballers of Khulna

The forgotten female footballers of Khulna

Wearing shorts and playing football -- these reasons were enough for some locals to attack under-17 female footballers of Super Queen Football Academy at Tentultala village in Khulna in July last year.

17h ago