কাতারের শ্রম আইনে বড় পরিবর্তন, নিয়োগকর্তার অনুমতি ছাড়াই চাকরি বদলের অনুমতি

নিয়োগকর্তার অনাপত্তি পত্র ছাড়াই এখন থেকে কাতার প্রবাসী শ্রমিকরা তাদের চাকরি পরিবর্তন করতে পারবেন। সেই সঙ্গে নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে ন্যূনতম মজুরিও। রোববার দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয় আইনের এই পরিবর্তনের ঘোষণা দিয়েছে।

নিয়োগকর্তার অনাপত্তি পত্র ছাড়াই এখন থেকে কাতার প্রবাসী শ্রমিকরা তাদের চাকরি পরিবর্তন করতে পারবেন। সেই সঙ্গে নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে ন্যূনতম মজুরিও। রোববার দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয় আইনের এই পরিবর্তনের ঘোষণা দিয়েছে।

পরিবর্তিত আইন অনুযায়ী কাতারে ন্যূনতম মজুরি নির্ধারণ করা হয়েছে এক হাজার কাতারি রিয়াল যা বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ২৩ হাজার টাকার সমান।

আল জাজিরার খবরে জানানো হয়, আর দুই বছর পরই কাতারে বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হবে। কাতার আয়োজনের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই দেশটিতে শ্রম ও মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ দৃষ্টি ছিল আন্তর্জাতিক মহলের। এর ধারাবাহিকতায় কাতারের শ্রম আইনে যুগান্তকারী এই পরিবর্তন এল।

কাতারে প্রবাসী শ্রমিক নিয়োগ হয় ‘কাফালা’ পদ্ধতিতে। এতদিন পর্যন্ত শ্রমিকদের চাকরি পরিবর্তনের জন্য পূর্বের নিয়োগকর্তার কাছ থেকে অনাপত্তি পত্র নেওয়া বাধ্যতামূলক ছিল। মানবাধিকার কর্মীদের অভিযোগ ছিল, ‘কাফালা’ পদ্ধতির সুযোগ নিয়ে নিয়োগকর্তারা শ্রমিকদের অন্যায়ভাবে কাজে আটকে রেখে শোষণ করতেন।

নতুন আইন অনুযায়ী এখন থেকে চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই প্রবাসী শ্রমিকরা স্বাধীনভাবে তাদের চাকরি পরিবর্তন করতে পারবেন।

Comments

The Daily Star  | English

$8b climate fund rolled out for Bangladesh

In a first in Asia, development partners have come together to announce an $8 billion fund to help Bangladesh mitigate and adapt to the effects of climate change.

2h ago