শীর্ষ খবর

ঢাকায় নিউরোসায়েন্স হাসপাতালের আইসিইউতে ঘোড়াঘাটের ইউএনও

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে সরকারি বাসভবনের ভেতর দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে ঢাকায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স অ্যান্ড হসপিটালে ভর্তি করা হয়েছে।
দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত ঘোড়াঘাটের ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টারে রংপুর থেকে ঢাকায় আনা হয়েছে। ছবি: আইএসপিআর

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে সরকারি বাসভবনের ভেতর দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে ঢাকায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স অ্যান্ড হসপিটালে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ বিকেল চারটায় এই হাসপাতালে ভর্তির পর তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে বলে হাসপাতালের কনট্রোল রুম থেকে দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করা হয়েছে।

আন্তবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর থেকে জানানো হয়, ইউএনও ওয়াহিদা খানমের অবস্থার অবনতি হওয়ায় রংপুরের একটি বেসরকারি ক্লিনিক থেকে আজ তাকে বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় আনা হয়।

গতরাতে একদল দুর্বৃত্ত ওয়াহিদা খানমের সরকারি বাসভবনে ঢ়ুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে। গুরুতর অবস্থায় তাকে রংপুরে ডক্টরস ক্লিনিক এর আইসিইউতে রাখা হয়। বিবৃতিতে আইএসপিআর জানায়, অবস্থার অবনতি হলে ওয়াহিদা খানমকে আজ জরুরি ভিত্তিতে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটি এমআই-১৭১এসএইচ হেলিকপ্টারে রংপুর হতে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়।

এর আগে, ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ দ্য ডেইলি স্টারকে বলে, ‘রাত ৩টার দিকে উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসে ইউএনওর বাসার টয়লেটের ভেল্টিলেটর ভেঙে দুর্বৃত্তরা ঢুকে। ইউএনও তা টের পেলে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় আঘাত করা হয়।’

‘সে সময় তার বাবা এগিয়ে আসলে তাকেও আঘাত করে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।’

ভোরেই রক্তাক্ত অবস্থায় ওয়াহিদাকে উদ্ধার করে প্রথমে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রংপুর কমিউনিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।

খবর পেয়ে সকালে দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম ও পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেনসহ পুলিশের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান।

জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘আমি মনে করি এটি একটি পরিকল্পিত হামলা।’

ঘোড়াঘাট ইউএনও ওয়াহিদা খানমের স্বামী রংপুর জেলার পীরগঞ্জ ইউএনও হিসেবে কর্মরত আছেন। ওয়াহিদা খানমের সঙ্গে তার বাবা ওমর আলী থাকতেন।

আরও পড়ুন: 

ঢাকায় আনা হচ্ছে হামলায় আহত ইউএনওকে

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

A section of government officials are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Center has found.

3h ago