১১ ঘণ্টা পর খুললো খাতুনগঞ্জ পেঁয়াজ আড়ত

চট্টগ্রামে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের প্রতিবাদে ১১ ঘণ্টা বন্ধ রাখার পর পেঁয়াজের আড়ত খুলেছেন খাতুনগঞ্জ এলাকার ব্যবসায়ীরা।
Khatunganj.jpg
পেঁয়াজের শতাধিক আড়ত বন্ধ রেখে ব্যবসায়ীরা খাতুনগঞ্জ সড়কে বিক্ষোভ করেন। ছবি: স্টার

চট্টগ্রামে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের প্রতিবাদে ১১ ঘণ্টা বন্ধ রাখার পর পেঁয়াজের আড়ত খুলেছেন খাতুনগঞ্জ এলাকার ব্যবসায়ীরা।

আজ সোমবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে মেসার্স মোহাম্মাদীয় বাণিজ্যলয়ের প্রোপ্রাইটার মো. মিন্টু সওদাগার দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রাম চেম্বার অফ কমার্সের সভাপতি মাহবুবুল আলম আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন মোবাইল কোর্ট পরিচালনার নামে হয়রানি না করার জন্য জেলা প্রশাসককে জানাবেন। তার এমন আশ্বাসের ভিত্তিতে আমরা আবারও আড়ত খুলেছি।’

এর আগে আজ সকাল থেকে পেঁয়াজের শতাধিক আড়ত বন্ধ রেখে ব্যবসায়ীরা খাতুনগঞ্জ সড়কে বিক্ষোভ করেন।

গতকাল প্রায় ১০টি আড়তকে মোট ৭৭ হাজার টাকা জরিমানা করেন জেলা প্রশাসন ম্যাজিস্ট্রেট পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সেসময় আদালত জানান, অভিযানে আড়তদাররা কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। মুঠোফোনে আমদানিকারকেরা যখন যে দর দেয়, সেই দরে পেঁয়াজ বিক্রি করে বাজার অস্থিতিশীল করা হয়েছে। এ জন্যই জরিমানা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে খাতুনগঞ্জ হামিদুল্লাহ মিয়া মার্কেট কল্যাণ সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ ইদ্রিস দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘গতকালের অভিযানের পর জরিমানা আতঙ্কে আড়ত বন্ধ রেখেছেন ব্যবসায়ীরা। এটি সমিতির কোনো ঘোষিত কর্মসূচি নয়।’

ইরা ট্রেডার্স নামে আড়তের মালিক ও কমিশন এজেন্ট ফারুক আহমেদ বলেন, ‘ভারতে দাম বাড়ার কারণে স্থলবন্দরগুলোতে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। আমদানীকারকদের নির্ধারিত দামে কমিশনের ভিত্তিতে আমরা পণ্য বিক্রি করি। পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধিতে আমাদের কোনো হাত নেই।’

খাতুনগঞ্জে গত শনিবার প্রতি কেজি পেঁয়াজের পাইকারি মূল্য ওঠে ৪২ থেকে ৪৩ টাকা। অভিযানের পর গতকাল বিকেলে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকায়।

Comments

The Daily Star  | English
Depositors’ money in merged banks will remain completely safe: Bangladesh Bank

Depositors’ money in merged banks will remain completely safe: BB

Accountholders of merged banks will be able to maintain their respective accounts as before

1h ago