সীমান্তে গুলি চালিয়েছে চীন সেনা, সংযম দেখিয়েছে ভারত: ভারতীয় সেনাবাহিনী

ভারতীয় সেনাদের বিরুদ্ধে ‘অবৈধভাবে বিতর্কিত সীমান্ত অতিক্রম’ ও টহল দেওয়ার সময় ‘উসকানিমূলক’ গুলি চালানোর অভিযোগ করেছে চীন। চীনের অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা বিবৃতি দিয়েছে ভারত।
লাদাখের আকাশে একটি যুদ্ধবিমান। ছবি: সংগৃহীত

ভারতীয় সেনাদের বিরুদ্ধে ‘অবৈধভাবে বিতর্কিত সীমান্ত অতিক্রম’ ও টহল দেওয়ার সময় ‘উসকানিমূলক’ গুলি চালানোর অভিযোগ করেছে চীন। চীনের অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা বিবৃতি দিয়েছে ভারত।

আজ মঙ্গলবার ভারতীয় সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে জানায়, ভারত না, চীনই প্রথমে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলএসি) বরাবর ফাঁকা গুলি ছুঁড়েছে।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর বিবৃতির বরাতে হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, মারাত্মক উসকানির পরেও ভারতীয় সেনারা ‘দুর্দান্ত সংযম দেখিয়েছে এবং পরিপক্ব ও দায়িত্বশীল আচরণ করেছে’।

চীনা পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে ভারতীয় সেনাবাহিনী জানায়, ভারতীয় সেনারা কখনই এলএসি পার হননি, তারা গুলিও চালাননি।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘সামরিক, কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক স্তরে উত্তেজনা কমানোর ব্যাপারে যখন আলোচনা চলছে, তখনও পিপলস লিবারেশন আর্মি স্পষ্টভাবে চুক্তি লঙ্ঘন ও আক্রমণাত্মক কৌশল চালিয়ে যাচ্ছে। ৭ সেপ্টেম্বরের ঘটনায় পিএলএর সেনারা ভারতের একটি ফরওয়ার্ড পোস্টের কাছে আসার চেষ্টা করেন। ভারতীয় সেনারা তাদের আটকান। সে সময় চীনা সেনারা ভারতীয়দের ভয় পাইয়ে দিতে আকাশে গুলি ছোঁড়ে।’

‘ভারতীয় সেনাবাহিনী শান্তি ও প্রশান্তি বজায় রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, তবে যেকোনো মূল্যে জাতীয় অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায়ও বদ্ধপরিকর।’

গত সপ্তাহে চীনা সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিতর্কিত সীমান্তের কাছাকাছি এলাকা থেকে পাঁচ ভারতীয়কে ‌‌অপহরণের অভিযোগে নয়াদিল্লি ও বেইজিংয়ের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে।

গতকাল মধ্যরাতে গত ৪৫ বছরে প্রথমবারের মতো প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর সর্তকতামূলক গুলি চালানো হয়েছে।

চীনা পিপলস লিবারেশন আর্মির মুখপাত্র সিনিয়র কর্নেল জাং শুইলির বরাতে চীনা রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ভারতীয় সেনারা ‘অবৈধভাবে প্যাংগং সো লেকের দক্ষিণ তীরের শেনপাও পাহাড়ি অঞ্চলের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলএসি) পার হয়েছেন।’

কর্নেল জাং বলেন, ‘ভারতের এই ধরনের কর্মকাণ্ড উভয় পক্ষের মধ্যকার চুক্তিগুলো গুরুতরভাবে লঙ্ঘন করেছে, এই অঞ্চলে উত্তেজনা বাড়িয়ে দিয়েছে... যা সেখানকার প্রকৃতির জন্য খুবই ক্ষতিকর।’

ভারতকে ‘অবিলম্বে বিপজ্জনক কর্মকাণ্ড বন্ধ, এলএসি পার হওয়া সেনাদের প্রত্যাহার এবং গুলি চালানো সেনাদের শাস্তি দেওয়ার’ আহ্বান জানিয়েছেন পিএলএর মুখপাত্র।

জুন মাসে লাদাখ সীমান্তে দুই দেশের সৈন্যদের মধ্যে সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সৈন্য নিহতের পরই দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বাড়তে শুরু করে।

Comments

The Daily Star  | English
New School Curriculum: Implementation limps along

New School Curriculum: Implementation limps along

One and a half years after it was launched, implementation of the new curriculum at schools is still in a shambles as the authorities are yet to finalise a method of evaluating the students.

9h ago