মারা গেলেন আহমদ শফী

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির শাহ আহমদ শফী মারা গেছেন। আজ শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় রাজধানীর গেন্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির শাহ আহমদ শফী মারা গেছেন। আজ শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় রাজধানীর গেন্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

চট্টগ্রামে হাটহাজারী মাদরাসা নামে পরিচিত আল-জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদরাসার সূরা কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন নানুপুরী দ্য ডেইলি স্টারকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘উন্নত চিকিৎসার জন্য শাহ আহমদ শফীকে আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। সন্ধ্যায় সেখানে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। আমরা তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছি।’

গতকাল রাতে হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালকের পদ থেকে সরে দাঁড়ান শাহ আহমদ শফী। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) ভর্তি করা হয়েছিল। এরপর সেখান থেকে তাকে আনা হয় ঢাকায়।

সেসময় চমেক’র উপপরিচালক আফতাবুল ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘গতকাল রাতে আহমদ শফীকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই সময় অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে রাখা হয়।’

আজ সকালে তার চিকিৎসার জন্য মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয় এবং বোর্ডের সিদ্ধান্তে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় আনা হয় বলে জানান আফতাবুল ইসলাম।

আহমদ শফীর ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ও হার্টের সমস্যা ছিল বলেও জানান তিনি।

আহমদ শফীর পরিবারের বরাত দিয়ে তিনি আরও জানান, সম্প্রতি হাটহাজারী মাদরাসায় চলমান উত্তেজনা নিয়ে তিনি মানসিকভাবে কিছুটা ভেঙে পড়েন।

শফী চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া থানার পাখিয়ারটিলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি আল-জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম এবং ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ মাদরাসায় শিক্ষালাভ করেন।

আরও পড়ুন:

উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়া হচ্ছে আহমদ শফীকে

হাটহাজারী মাদ্রাসা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধের নির্দেশ

Comments