আগামী ২৬ মার্চের মধ্যে চালু হবে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি ট্রেন: মন্ত্রী

১৯৬৫ সালে পাক-ভারত যুদ্ধের পর তৎকালীন ভারত ও পূর্ব পাকিস্তানের মধ্যে যে ছয়টি রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায় তার একটি চিলাহাটি-হলদিবাড়ি। ইতোমধ্যে এ রুটে উভয় সীমান্তের মধ্যে রেলপথ নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের পথে।
পঞ্চগড় সরকারি মিলনায়তনে জেলা কৃষকলীগ আয়োজিত সভায় বক্তব্য রাখছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। ছবি: কামরুল ইসলাম রুবাইয়াত

১৯৬৫ সালে পাক-ভারত যুদ্ধের পর তৎকালীন ভারত ও পূর্ব পাকিস্তানের মধ্যে যে ছয়টি রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায় তার একটি চিলাহাটি-হলদিবাড়ি। ইতোমধ্যে এ রুটে উভয় সীমান্তের মধ্যে রেলপথ নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের পথে।

আগামী বিজয় দিবস অথবা স্বাধীনতা দিবসে দুই দেশের সরকার প্রধান বাংলাদেশের চিলাহাটি এবং ভারতের হলদিবাড়ি দিয়ে ভারতের সঙ্গে সরাসরি ট্রেন চলাচলের উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

রেলপথ মন্ত্রী ও পঞ্চগড়-২ আসনের সংসদ সদস্য নূরুল ইসলাম সুজন শুক্রবার দুপুরে পঞ্চগড় সরকারি মিলনায়তনে জেলা কৃষকলীগ আয়োজিত সভায় এসব কথা বলেন।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের বাংলাবান্ধা পর্যন্ত রেল লাইন সম্প্রসারণের পরিকল্পনা করছে বলে জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের মানুষকে রেলযোগে রাজশাহী যেতে হলে ডোমার বা চিলাহাটি গিয়ে ট্রেনে উঠতে হয়। এই এলাকার মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে পঞ্চগড় থেকে রাজশাহী পর্যন্ত একটি ট্রেন চালুর পরিকল্পনা করা হয়েছে। যা আগামী ১৫ অক্টোবরের মধ্যে উদ্বোধন করা হবে বলে আমি আশাবাদী।’

রেলমন্ত্রী বলেন, ‘রেল যোগাযোগ ব্যবস্থাকে মানুষের কাছে আরামদায়ক ও সহজলভ্য করে গড়ে তোলা হচ্ছে। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে মাত্র ১৫ কিলোমিটার বেগে ট্রেন চলাচল করতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সেখানে আরও একটি রেল সেতু নির্মাণ করা হবে।’

কৃষকলীগের নেতাকর্মী ও কৃষকদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নে ২৫ বিঘা পর্যন্ত জমির খাজনা মওকুফ করে সবুজ বিল্পবের ডাক দিয়েছিলেন। বর্তমান সরকার কৃষিকে অগ্রাধিকার দিয়ে সার-কীটনাশকের দাম কমিয়ে আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতিসহ নানা উপায়ে ভর্তুকি দিয়ে কৃষককে সহায়তা দিচ্ছে। এর ফলে দেশে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি পাচ্ছে।’

এ সময় মন্ত্রী খাদ্য উৎপাদনের মাধ্যমে দেশকে সমৃদ্ধশালী করতে শস্য চার্ট অনুসরণ করে জমি বিবেচনায় শস্য চাষাবাদের জন্য কৃষকদের আহবান জানান।

পঞ্চগড় জেলা কৃষকলীগের সভাপতি তাজিরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় পঞ্চগড়-১ আসনের সংসদ সদস্য মজাহারুল হক প্রধান, পঞ্চগড় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার সাদাত, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সহসভাপতি আব্দুল লতিফ তারিন, সহসাধারণ সম্পাদক বিশ্বনাথ সরকার বিটু, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী উপস্থিত ছিলেন।

Comments