পাটকল চালুর দাবিতে খুলনায় শ্রমিকদের মিছিলে পুলিশের বাধা, আটক ৩

দুর্নীতি-ভুল নীতি ও লুটপাট বন্ধ করে অবিলম্বে পাটকল চালু ও আধুনিকায়নের দাবিতে আজ খুলনার খালিশপুরে শ্রমিকদের কফিন মিছিল কর্মসূচি পুলিশ বন্ধ করে দিয়েছে। সংগঠক রুহুল আমিন, সুজয় শুভ ও আতিফ অনিককে আটক করে পুলিশ বলেছে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের আটক করা হয়েছে।
ছবি: স্টার

দুর্নীতি-ভুল নীতি ও লুটপাট বন্ধ করে অবিলম্বে পাটকল চালু ও আধুনিকায়নের দাবিতে আজ খুলনার খালিশপুরে শ্রমিকদের কফিন মিছিল কর্মসূচি পুলিশ বন্ধ করে দিয়েছে। সংগঠক রুহুল আমিন, সুজয় শুভ ও আতিফ অনিককে আটক করে পুলিশ বলেছে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের আটক করা হয়েছে।

আজ রোববার বিকেল ৪টায় মিছিল হওয়ার কথা ছিল। মিছিলটির আয়োজন করেছিল পাটকল রক্ষা শ্রমিক-কৃষক-ছাত্র-জনতা ঐক্য পরিষদ নামের একটি সংগঠন। এর আগে দুপুর পৌনে ২টার দিকে খালিশপুরের ক্রিসেন্ট জুট মিলের সামনে থেকে ওই সংগঠনের মূল সমন্বয়কসহ তিন জনকে আটক করে পুলিশ।

তবে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা কফিন মিছিলের বিরুদ্ধে মিছিল করেছেন।

এলাকা ঘুরে দেখা যায়, খালিশপুর শিল্পাঞ্চলে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বেলা সাড়ে ১২টার পর থেকে নতুন রাস্তা মোড় এলাকার বিআইডিসি সড়কের প্রবেশপথ বন্ধ করে দেওয়া হয়। এছাড়া প্রতিটি মিল গেটে বিপুল সংখ্যক শিল্প পুলিশ ও সাধারণ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ বলছে, ওই মিছিল করার জন্য খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ থেকে কোনো অনুমতি দেওয়া হয়নি। ওই তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

খালিশপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সানাউল্লাহ নান্নু ডেইলি স্টারকে বলেন, যেহতেু শ্রমিকরা টাকা পাচ্ছে তাই সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে তারা আনন্দ মিছিল করেছেন।

আটক তিনজন হলেন, পাটকল রক্ষা শ্রমিক-কৃষক-ছাত্র-জনতা ঐক্য পরিষদের সমন্বয়ক রুহুল আমিন, বিপ্লবী ছাত্র যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি আতিফ অনিক ও বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের (মাকর্সবাদী) আহ্বায়ক সুজয় বিশ্বাস। মিছিলের জন্য তারা ক্রিসেন্ট জুট মিলের সামনে শ্রমিকদের জড়ো করছিলেন।

ওই সংগঠনের কর্মী নিয়াজ মুর্শিদ বলেন, ২ অক্টোবর খালিশপুরের ক্রিসেন্ট জুট মিল এলাকায় শ্রমিক মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সেখান থেকেই কফিন মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। পরদিন মিছিলের জন্য কেএমপি সদর দপ্তরে অবহিতকরণ চিঠি দেওয়া হয়। সব আয়োজনই ঠিক ছিল কিন্তু পুলিশের বাধার কারণে তা বন্ধ হয়ে গেছে।

কেএমপির উত্তর জোনের উপকমিশনার মোল্লা জাহাঙ্গীর ডেইলি স্টারকে বলেন, মিছিল করার জন্য কাউকে অনুমতি দেওয়া হয়নি। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তিন জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আগে কোনো মামলা আছে কি না খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

A section of government officials are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Center has found.

3h ago