করোনাভাইরাস

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৬৬৭৩২, মৃত্যু ৮১৬

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ৬৬ হাজার ৭৩২ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৭১ লাখ ২০ হাজার ৫৩৮ জনে দাঁড়াল। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।
দিল্লিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির মরদেহের পাশে সুরক্ষা পোশাক পরে দাঁড়িয়ে আছেন এক স্বাস্থ্যকর্মী। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০। ছবি: রয়টার্স

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ৬৬ হাজার ৭৩২ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৭১ লাখ ২০ হাজার ৫৩৮ জনে দাঁড়াল। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।

একই সময়ে মারা গেছেন আরও ৮১৬ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত দেশটিতে মৃত্যুবরণ করেছেন এক লাখ নয় হাজার ১৫০ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৭১ হাজার ৫৫৯ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৬১ লাখ ৪৯ হাজার ৫৩৫ জন। ভারতে মোট শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৬ দশমিক ৩৬ শতাংশ।

আজ সোমবার ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে। এরপর রয়েছে অন্ধ্র প্রদেশ, কর্ণাটক, তামিল নাড়ু, উত্তর প্রদেশ ও দিল্লিতে। দেশটিতে মোট শনাক্ত ৭১ লাখ ২০ হাজার ৫৩৮ জনের মধ্যে বর্তমানে আক্রান্ত রয়েছেন আট লাখ ৬১ হাজার ৮৫৩ জন।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নয় লাখ ৯৪ হাজার ৮৫১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আর এখন পর্যন্ত পরীক্ষা করা হয়েছে আট কোটি ৭৮ লাখ ৭২ হাজার ৯৩টি নমুনা।

উল্লেখ্য, জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টারের তথ্য অনুযায়ী, সংক্রমণের দিক থেকে বর্তমানে বিশ্বে ভারতের অবস্থান দুই নম্বরে। ভারতের আগে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও পরে ব্রাজিল।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন কোটি ৭৪ লাখ আট হাজার ৫৯৩ জন এবং মারা গেছেন ১০ লাখ ৭৫ হাজার ৯৪২ জন। আর সুস্থ হয়েছেন দুই কোটি ৫৯ লাখ ৯৯ হাজার ৭৯৯ জন।

Comments

The Daily Star  | English
market price monitoring during Ramadan

Govt working to stabilise 'volatile market': minister

Industries Minister Nurul Majid Mahmud Humayun today, acknowledging instability, said the government is working to bring stability in the market during the upcoming Holy Ramadan.

12m ago