কক্সবাজার সৈকতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে পুলিশ-দখলদার সংঘর্ষ, আহত ১০

উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুসারে কক্সবাজার সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে ৫২ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গিয়ে পুলিশ ও দখলদারদের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিকসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।
জেলা প্রশাসন ও কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে এ অভিযান পরিচালনা করছে। ছবি: সংগৃহীত

উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুসারে কক্সবাজার সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে ৫২ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গিয়ে পুলিশ ও দখলদারদের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিকসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

আজ শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। কক্সবাজার সদর ইউনিয়ন উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা মো. জাহেদ দ্য ডেইলি স্টারকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আহত সাংবাদিককে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা মো. জাহেদ বলেন, ‘উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী কক্সবাজার জেলা প্রশাসন এবং কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আজ যৌথভাবে এই অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করতে যায়। তখন এগুলোর মালিক এবং দখলদারেরা জড় হয়ে প্রথমে উচ্ছেদে বাধা দেয়। একপর্যায়ে পুলিশের ওপরে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। অবৈধ দখলদারেরা এ সময় তারা বুলডোজারের সামনে শুয়ে পড়ে এবং পুলিশের ওপরে চড়াও হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘একপর্যায়ে অবৈধ দখলদারদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ রাবার বুলেট এবং টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে। এতেও অবৈধ দখলদাররা না সরলে পুলিশ প্রায় ২০ রাউন্ড ফাকা গুলি বর্ষণ করে।’

‘এখনো উচ্ছেদ অভিযান চলছে। উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত আছেন সরকারের উপসচিব এবং কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সচিব আবু জাফর রাশেদ, কক্সবাজার সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার মো. শাহরিয়ার মুক্তার এবং কক্সবাজার সদর থানার ওসি শেখ মনিরুল,’ যোগ করেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

44 lives lost to Bailey Road blaze

33 died at DMCH, 10 at the burn institute, and one at Central Police Hospital

9h ago