বৈরী আবহাওয়া: শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে নৌযান চলাচল বন্ধ

বৈরী আবহাওয়ার কারণে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ আছে। আজ শুক্রবার সকাল থেকেই মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়াঘাট থেকে কোনো নৌযান চলাচল করেনি।
বৈরী আবহাওয়ার কারণে নৌযান চলাচল বন্ধ। ছবি: স্টার

বৈরী আবহাওয়ার কারণে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ আছে। আজ শুক্রবার সকাল থেকেই মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়াঘাট থেকে কোনো নৌযান চলাচল করেনি।

এর আগে গতকাল বিকেল থেকে একই কারণে বন্ধ হয়ে যায় লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল। ঝড়ো হাওয়া, উত্তাল পদ্মা ও বৃষ্টির কারণে যাত্রীদের নিরাপত্তার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে নৌযান চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

নৌযানগুলো ঘাটে রাখা হয়েছে। ছবি: স্টার

শিমুলিয়া ঘাটের বিআইডাব্লিউটিএ’র সহকারী পরিচালক মো. শাহদাত হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘শিমুলিয়া ঘাটে দুই নম্বর সতর্ক সংকেত চলমান আছে। বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল করছে না। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখতে হচ্ছে নৌযানগুলো। মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়াঘাট ও মাদারিপুরের কাঁঠালবাড়ী ঘাটে লঞ্চগুলো অবস্থান করছে।’

‘অনুকূল আবহাওয়া আর নৌযান চলাচলের উপযুক্ত পরিস্থিতি তৈরি হলে পারাপার শুরু হতে পারে। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় যাতে কোনো নৌযান চলাচল না করে, সেদিকে লক্ষ্য রাখা হচ্ছে। এই নৌরুটে ৮২টি লঞ্চ ও চার শতাধিক স্পিডবোট চলাচল করে থাকে’, বলেন বিআইডাব্লিউটিএ’র এই কর্মকর্তা।

এদিকে, নাব্যতা সংকটের কারণে গত আট দিন ধরে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রেখেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি)। যে কারণে পরিবার-পরিজন নিয়ে অনেক যাত্রীই শিমুলিয়াঘাটে গিয়ে বিপাকে পড়েছেন।

Comments

The Daily Star  | English

Sajek accident: Death toll rises to 9

The death toll in the truck accident in Rangamati's Sajek increased to nine tonight

2h ago