করোনাভাইরাস

মৃত্যু ১১ লাখ ৫৩ হাজার, আক্রান্ত ৪ কোটি ৩০ লাখের বেশি

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে ১১ লাখ ৫৩ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন চার কোটি ৩০ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন দুই কোটি সাড়ে ৮৯ লাখের বেশি মানুষ।
মেক্সিকোতে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। ২১ অক্টোবর ২০২০। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে ১১ লাখ ৫৩ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন চার কোটি ৩০ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন দুই কোটি সাড়ে ৮৯ লাখের বেশি মানুষ।

আজ সোমবার জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন চার কোটি ৩০ লাখ নয় হাজার ৩১১ জন এবং মারা গেছেন ১১ লাখ ৫৩ হাজার ৮৫৭ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন দুই কোটি ৮৯ লাখ ৫৯ হাজার ৭৭৬ জন।

করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৬ লাখ ৩৫ হাজার ৭৫২ জন এবং মারা গেছেন দুই লাখ ২৫ হাজার ২২৭ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৩৪ লাখ ২২ হাজার ৮৭৮ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি মৃত্যু দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩ লাখ ৮০ হাজার ৬৩৫ জন, মারা গেছেন এক লাখ ৫৬ হাজার ৯০৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪৫ লাখ ২৬ হাজার ৩৯৩ জন।

সংক্রমণের দিক থেকে দ্বিতীয় ও মৃত্যুর দিক থেকে তৃতীয়তে থাকা ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৯ লাখ নয় হাজার ৯৫৯ জন, মারা গেছেন এক লাখ ১৯ হাজার ১৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭১ লাখ ৩৭ হাজার ২২৮ জন।

মৃত্যুর সংখ্যার দিক থেকে চতুর্থতে রয়েছে মেক্সিকো। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৮৮ হাজার ৯২৪ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন আট লাখ ৯১ হাজার ১৬০ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন সাত লাখ ৫২ হাজার ৬৯১ জন।

ভাইরাসটির সংক্রমণস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছেন ৯১ হাজার ১৫১ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৭৩৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮৬ হাজার দুই জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিন লাখ ৯৮ হাজার ৮১৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারা গেছেন পাঁচ হাজার ৮০৩ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ১৫ হাজার ১০৭ জন।

Comments

The Daily Star  | English

The taste of Royal Tehari House: A Nilkhet heritage

Nestled among the busy bookshops of Nilkhet, Royal Tehari House is a shop that offers students a delectable treat without burning a hole in their pockets.

2h ago