কলাবাগানে কিশোর হত্যার অভিযোগ

রাজধানীর কলাবাগানের কাঠালবাগান এলাকায় আশিক রহমান (১৫) নামে এক কিশোরকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে মুমূর্ষু অবস্থায় আশিককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

রাজধানীর কলাবাগানের কাঠালবাগান এলাকায় আশিক রহমান (১৫) নামে এক কিশোরকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে মুমূর্ষু অবস্থায় আশিককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত আশিকের বড় ভাই মো. সাগর জানায়, তারা কাঠালবাগানের লাকি হোটেল মোড়ে ভাড়া থাকেন। তিনি চটপটির ব্যবসা করেন। তাদের গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্চারামপুর উপজেলার বাড়াইলচড় গ্রামে।

তিনি জানান, আশিক কিছুই করত না। এলাকার কিছু ছেলেদের সঙ্গে ঘুরত। আশিক মাদকাসক্ত ছিল। গতকাল রাত ১০টার দিকে কে বা কারা তার বাবার নম্বরে ফোন দিয়ে আশিককে ডেকে নিয়ে যায়। তারপর থেকে আর তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। সকালে পরিবারের সদস্যরা খবর পান যে কাঠালবাগানে হারুন অর রশিদেরর বাড়ি ও পাশের একটি নির্মাণাধীন ভবনের মধ্যকার চিপায় আশিক পড়ে আছে। পরে সেখান থেকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সাগর বলেন, ‘হারুন অর রশিদের দুই ছেলে বলিয়ম ও রেজোয়ানদের সঙ্গেই ঘুড়ত আশিক। তারাও মাদকাসক্ত। গতকাল তারাই আশিককে ডেকে নিয়ে গেছে। তারাই আমার ভাইকে হত্যা করেছে। এর আগেও আশিককে হত্যার হুমকি দিয়েছিল তারা।’

মৃত্যুর বিষয়টি দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করে ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ বক্সের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি মর্গে রাখা হয়েছে। মৃত আশিকের থুতনিতে ও দুই পায়ে রক্তাক্ত জখম রয়েছে।

Comments