জাপানে কিশোর আত্মহত্যার রেকর্ড

অন্যান্য দেশের তুলনায় জাপানে আত্মহত্যার হার তুলনামূলকভাবে বেশি সে কথা অনেকেই জানেন। এ প্রবণতা দেশটির কিশোরদের মধ্যে এমন মাত্রায় রয়েছে যে তা এখন সংবাদ শিরোনাম।
ছবি: সংগৃহীত

অন্যান্য দেশের তুলনায় জাপানে আত্মহত্যার হার তুলনামূলকভাবে বেশি সে কথা অনেকেই জানেন। এ প্রবণতা দেশটির কিশোরদের মধ্যে এমন মাত্রায় রয়েছে যে তা এখন সংবাদ শিরোনাম।

সরকারি তথ্যের বরাত দিয়ে গতকাল মঙ্গলবার দ্য জাপান টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৯ সালে জাপানে কিশোরদের আত্মহত্যার রেকর্ড হয়েছে।

গত বছর সূর্যোদয়ের দেশটিতে প্রতি ১ লাখে আত্মহত্যা করেছেন ৩ দশমিক ১ জন মানুষ। তাদের মধ্যে রয়েছে ২০ বছরের কম বয়সী কিশোর। ২০১৯ সালে তাদের আত্মহননের ঘটনা এর আগের বছরের তুলনায় শূন্য দশমিক ৩ শতাংশ বেশি।

সরকারি তথ্য মতে, গত ১০ বছরে জাপানে সব বয়সের মানুষের মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা কমেছে। গত বছর এই সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ১৬৯ জনে। যা আগের বছরের তুলনায় ৬৭১ জন কম।

জাপানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জরিপে বলা হয়, ২০১৯ সালে আত্মহননকারী কিশোরের সংখ্যা ছিল ৬৫৯। তা আগের বছরের তুলনায় ৬০ জন বেড়েছে। গত ২০ বছরে এটি সর্বোচ্চ।

তবে বয়স্কদের মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা কমেছে ১ দশমিক ৬ শতাংশ।

ধারণা করা হচ্ছে, ২০২ কিশোরের আত্মহত্যার পেছনে কারণ ছিল স্কুলে সমস্যা। এছাড়াও, ১৩৮ জন স্বাস্থ্যগত ও ১১৬ জন পারিবারিক অশান্তির কারণে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে।

জাপানে ৪০ থেকে ৬৪ বছর বয়সীদের মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা গত ১০ বছরে অনেকটাই কমেছে। তাদের আত্মহননের পেছনে মূল কারণ হিসেবে স্বাস্থ্যগত সমস্যাকে ধারণা করা হচ্ছে।

দেশটিতে অর্থনৈতিক সমস্যা, বিশেষ করে নানাবিধ ঋণের কারণে পুরুষরা এবং পারিবারিক, বিশেষ করে বৈবাহিক সম্পর্কে সমস্যার কারণে নারীরা আত্মহননের পথ বেছে নেন।

২০০৯ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত জাপানে মধ্যবয়সী ও বয়স্কদের আত্মহননের পেছনে স্বাস্থ্যগত সমস্যাকে মূল কারণ হিসেবে ধারণা করা হয়েছে। এরপর ধরা হয়েছে অর্থনৈতিক, বসবাস সংক্রান্ত ও পারিবারিক সমস্যাকে।

Comments

The Daily Star  | English

'Will not spare anyone if attacked'

Quader vows response if any Bangladeshi harmed by Myanmar firing tensions

36m ago