শুক্রবার মধ্যরাত থেকে কিছু এলাকায় ইন্টারনেটের গতি কম থাকবে

আগামী শুক্রবার মধ্যরাতের পর থেকে দেশের কিছু অংশে ইন্টারনেটের গতি কম থাকবে। ভারতী এয়ারটেল লিমিটেডের গ্লোবাল সার্ভিসেস ম্যানেজমেন্ট সেন্টার গতকাল বাংলাদেশে তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠানকে ইমেইলে এ কথা জানিয়েছে। আইটুআই ক্যাবল পরিবর্তনের কাজ শুরু হওয়ায় ইন্টারনেট সেবায় এই বিঘ্ন ঘটবে।

আগামী শুক্রবার মধ্যরাতের পর থেকে দেশের কিছু অংশে ইন্টারনেটের গতি কম থাকবে। ভারতী এয়ারটেল লিমিটেডের গ্লোবাল সার্ভিসেস ম্যানেজমেন্ট সেন্টার গতকাল বাংলাদেশে তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠানকে ইমেইলে এ কথা জানিয়েছে। আইটুআই ক্যাবল পরিবর্তনের কাজ শুরু হওয়ায় ইন্টারনেট সেবায় এই বিঘ্ন ঘটবে।

ইমেইলে বলা হয়, ‘ক্যাবল শিপের সর্বশেষ ডিপিআর (অগ্রগতি পর্যালোচনা) অনুযায়ী আইটুআই এর ক্যাবল পরিবর্তন কার্যক্রম ২৯ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে ২ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে বলে আশা করা হচ্ছে।’

তারা আরও বলেছে, ‘ক্যাবল পরিবর্তনের অগ্রগতি ও আবহাওয়ার অবস্থার উপর নির্ভর করে পরিকল্পিত শিডিউল পরিবর্তিত হতে পারে।’

তিন হাজার ১০০ কিলোমিটার দীর্ঘ সাবমেরিন ক্যাবল আইটুআই ক্যাবল নেটওয়ার্ক হিসেবে পরিচিত। এটি সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ইন্টারনেট গেটওয়ের (আইআইজি) সঙ্গে সংযুক্ত বলে অপারেটররা জানিয়েছেন।

এর আগে ২৬ অক্টোবর ভারতী এয়ারটেল জানিয়েছিল যে তারা মঙ্গলবার থেকে রক্ষণাবেক্ষণের কাজ শুরু করার পরিকল্পনা করছে।

এই খাতের বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চেন্নাইয়ের সঙ্গে সিঙ্গাপুরের সংযোগকারী সাবমেরিন ক্যাবলের রক্ষণাবেক্ষণের কাজের জন্য কিছু এলাকায় ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা পাঁচ দিন ধীর গতির সেবা পেতে পারেন।

আজ বুধবার ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (আইআইজিএবি) এর সেক্রেটারি জেনারেল আহমেদ জুনায়েদ বলেন, ‘বিশেষ করে রাত ৮টা থেকে ১টার মধ্যে কিছু জায়গায় সেবা বিঘ্নিত হতে পারে।’

দ্য ডেইলি স্টারের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরও বলেন, ‘সিঙ্গাপুর অংশে ভারতী এয়ারটেল লিমিটেড তাদের সিবোন ক্যাবল সরঞ্জাম পরিবর্তনের কারণে বিভ্রাট হতে পারে। বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইডথ ১০০ জিবিপিএস থেকে ১৫০ জিবিপিএস হতে পারে।’

ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (আইএসপিএবি) সহ-সভাপতি জুনায়েদ জানান, বর্তমানে বাংলাদেশে ১৭০০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ রয়েছে।

জুনায়েদ বলেন, ‘বড় আইআইজি অপারেটররা পরিস্থিতি সামাল দিতে ইতিমধ্যে কিছু বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।’

‘আমরা আশা করি, ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা এ সময়ে খুব বেশি সমস্যার মুখোমুখি হবেন না’, যোগ করেন তিনি।

Comments