‘বিশ্বকাপের আগেই নিষিদ্ধ হতে পারতাম’

ক্রিকেট থেকে এক বছরের নির্বাসন শেষ করে সাকিব জানালেন,ভীষণ অস্বস্তি নিয়ে বিশ্ব আসরে খেলতে গিয়েছিলেন তিনি
shakib al hasan
ফাইল ছবি: ফিরোজ আহমেদ

জানতেন সামনে আসছে খারাপ কোন খবর। আইসিসির তদন্তকারী কর্মকর্তা আর তিনি ছাড়া জানতেন না আর কেউই। বুকের উপর অনেক বড় এক ভার বয়ে নিয়ে গত বিশ্বকাপে খেলেছিলেন সাকিব আল হাসান। অথচ সব সামলে বিশ্বকাপে ৮ ম্যাচে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৬০৬ রান করে ফেলেন তিনি। যা ছিল তার কাছে ভীষণ কঠিন এক চ্যালেঞ্জ। এমনকি বিশ্বকাপের আগেও নিষিদ্ধ হওয়ার শঙ্কা ছিল তার।

ক্রিকেট থেকে এক বছরের নির্বাসন শেষ করে সাকিব জানালেন,ভীষণ অস্বস্তি নিয়ে বিশ্ব আসরে খেলতে গিয়েছিলেন তিনি। আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী ইউনিটের তদন্তের জালে ২০১৮ সালের নভেম্বর থেকেই আটকা পড়েন সাকিব। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করছেন, তদন্তে বেরিয়ে আসার পর তার জেরা চলছিল লম্বা সময় ধরে। বিশ্বকাপ খেলতে গিয়েছিলেন যেকোনো সময় নিষেধাজ্ঞা আসার শঙ্কা নিয়ে।

অবশ্য বিশ্বকাপ শেষের অনেকটা পরে ২০১৯ সালের ২৯ অক্টোবর আইসিসির রায়ে নিষিদ্ধ হন তিনি।

সেই খারপ সময় হয়েছে অতীত । বুধবার রাতে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ভক্ত ও সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সাকিব জানান কতটা অস্বস্তিতে ছিলেন গেল বিশ্বকাপে, ‘আমার তো মনে হয় খুবই চ্যালেঞ্জিং (সব জেনে বিশ্বকাপ খেলা)। কারণ  অনেক দিন থেকেই এটার তদন্ত চলছিল। নিয়মিত ওরা আমার সঙ্গে যোগাযোগ করছিল, স্বাভাবিকভাবে আমার জন্য খুব অস্বস্তিকর ছিল। এটা কখনই একজন খেলোয়াড়ের সুন্দর একটা অনুভূতি না। সেদিক থেকে অবশ্যই অনেক কঠিন সময় ছিল।’

আরও পড়ুন- ‘ঘটনাটাই এমন যে কারো সন্দেহ জাগতে পারে’

অথচ অমন কঠিন পরিস্থিতিতেও তার ব্যাটিং ও বোলিং ছিল বিস্ময়কর সাফল্যে রাঙানো। গোটা বিশ্বকাপে তারচেয়ে বেশি রান করেছেন কেবল রোহিত শর্মা ও ডেভিড ওয়ার্নার। তারা তার থেকে ম্যাচও খেলেছেন বেশি। ৮ ম্যাচে করেছেন ৫ ফিফটি আর ২ সেঞ্চুরি।

আরও পড়ুন- ভাগ্যবান সাকিবের কাছে নিষেধাজ্ঞা শাপে বর

নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পড়তে যাচ্ছেন, এটা জেনেই কি তার অমন বিস্ফোরক পারফরম্যান্স? অনেকেরই কৌতূহল ছিল তা। তবে সাকিব জানান, বিশ্বকাপের আগেও নিষিদ্ধ হতে পারতেন। বিশ্বকাপে পারফর্ম করেছেন নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে,  ‘ওই ঘটনা বিশ্বকাপের পারফরম্যান্সের প্রভাবক, এরকম না। তবে তদন্ত শুরু হয়েছিল নভেম্বর ডিসেম্বরের (২০১৮ সালের) দিকে। বিশ্বকাপের আগেও আমি নিষিদ্ধ হতে পারতাম। সেটা হয়নি। কিন্তু ওটা কখনই মাথায় কাজ করেনি যে ওটার (নিষেধাজ্ঞা আসছে) জন্য ভাল করতেই হবে। বিশ্বকাপে আমার ভাল কিছু করা দরকার ছিল। কারণ এর আগে যতগুলো বিশ্বকাপ খেলেছি বলার মত কিছু করিনি। নিজের নামের পাশে যেহেতু একটা রেপুটেশন আছে। কখনই মনে হয়নি বিশ্ব পর্যায়ে সেই রেপুটেশন তুলে ধরতে পারছিলাম। বয়সটাও আমার পক্ষে ছিল। যে বয়সে মানুষ সেরা ছন্দে থাকে।’

আরও পড়ুন- সাকিব এখন জীবন নিয়ে ভিন্নভাবে ভাবতে শিখেছেন

আরও পড়ুন- সাকিবও চেয়েছিলেন বার্সা ছাড়ুক মেসি

 

Comments