মার্কিন নির্বাচন

ভোট পুনর্গণনা: কোন রাজ্যের কী নিয়ম?

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পেনসিলভেনিয়া, উইসকনসিন ও জর্জিয়াতে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন এগিয়ে আছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে। এসব রাজ্যের ভোট আবার গণনার দাবি জানিয়েছেন ট্রাম্প।
পেনসিলভানিয়ার ফিলাডেলফিয়াতে গতকাল ৬ নভেম্বর, ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পোস্টাল ব্যালট গণনা করছেন নির্বাচন কর্মীরা। ছবি: রয়টার্স

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পেনসিলভেনিয়া, উইসকনসিন ও জর্জিয়াতে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন এগিয়ে আছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে। এসব রাজ্যের ভোট আবার গণনার দাবি জানিয়েছেন ট্রাম্প।

ব্যবধান খুব সামান্য হলে কিংবা আবেদন করা হলে, ভোট পুনরায় গুনতে হবে নির্বাচন কর্মকর্তাদের। দেখে নেওয়া যাক এসব রাজ্যে পুনরায় ভোট গণনার নিয়ম কী।

পেনসিলভেনিয়া

এ রাজ্যের নিয়মেই আছে, ভোটের ব্যবধান শূন্য দশমিক পাঁচ শতাংশ (০.৫%) বা তার কম হলে নতুন করে গণনা হবে। ব্যবধান এর উপরে থাকার পরেও পুনর্গণনা চাইলে, প্রাথমিক ফলাফল ঘোষণার পাঁচ দিনের মধ্যে রাজ্য আদালতে আবেদন করতে পারবে ভোটাররা। তবে সেক্ষেত্রে প্রাথমিক গণনার ত্রুটিগুলো অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে আবেদনে। পুরো রাজ্যের ভোট ছাড়াও, আংশিকভাবে পুনর্গণনার অনুমতি আছে পেনসিলভেনিয়াতে।

আবেদনকারীদের ভোট পুনরায় গণনার খরচ বহন করতে হবে। তবে, গণনার পর উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হলে, তা ফেরত দেওয়া হতে পারে। এবারের ৩ নভেম্বরের নির্বাচনের পুনরায় গণনা ২৪ নভেম্বরের মধ্যে শেষ করতে হবে।

জর্জিয়া

এ রাজ্যের আইনে পুনর্গণনা আবেদন ছাড়া হয় না। ব্যবধান শূন্য দশমিক পাঁচ শতাংশ (০.৫%) হলে, আবেদনকারীদের খরচে নির্বাচন কর্মকর্তারা ভোট নতুন করে গণনা করতে পারেন।

প্রার্থীরা জর্জিয়ার সেক্রেটারি অফ স্টেটের কাছে গণনার ত্রুটি উল্লেখ করে নির্দিষ্ট প্রমাণসহ নতুন করে ভোট গণনার আবেদন করতে পারেন। আংশিক পুনঃনিরীক্ষণের সুযোগ নেই এ রাজ্যে। পুনর্গণনার সময় প্রার্থীদের কিংবা দলীয় প্রতিনিধিদের উপস্থিত থাকার অনুমতি আছে রাজ্য আইনে।

উইসকনসিন

উইসকনসিনেও আবেদন ছাড়া পুনর্গণনা হয় না। প্রাথমিক গণনা শেষ হওয়ার এক দিনের মধ্যে রাজ্যের ইলেকশন কমিশনে আবেদন করতে হবে এবং ১৩ দিনের মধ্যে নতুন করে গণনা শেষ করতে হবে।

ব্যবধান শূন্য দশমিক ২৫ শতাংশ (০.২৫%) বা তার কম হলে, রাজ্যই এর ব্যয় বহন করবে। আর, ব্যবধান এর বেশি হলে আবেদনকারীকে পুনর্গণনার খরচ বহন করতে হবে।

মিশিগান

মিশিগানে ভোটের ব্যবধান দুই হাজারের কম হলে, রাজ্য আইনেই পুনর্গণনার নিয়ম আছে। প্রার্থীরাও প্রাথমিক গণনার ফলাফলের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে স্টেট সেক্রেটারির কাছে আবেদন করতে পারেন। তবে, সেক্ষেত্রে গণনার ত্রুটি প্রমাণসহ উপস্থাপন করতে হবে।

আবেদনের ৩০ দিনের মধ্যে পুনর্গননা শেষ করতে হবে। আংশিক গণনার সুযোগ আছে এ রাজ্যে।

নেভাদা

এ রাজ্যের আইনে সরাসরি ভোট পুনর্গণনার নিয়ম নেই। তবে, প্রেসিডেন্ট প্রার্থী নেভাদার সেক্রেটারি অফ স্টেটের কাছে প্রাথমিক গণনা শেষের তিন দিনের মধ্যে পুনরায় গণনার আবেদন করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে, ভোট ব্যবধানের কোনও বিষয় নেই। তবে, আংশিক পুনঃনিরীক্ষণের অনুমতি নেই এ রাজ্যে।

পুনঃনিরীক্ষণের খরচ আবেদনকারী বহন করবেন এবং আবেদনের ১০ দিনের মধ্যে গণনা শেষ করতে হবে। তবে, পুনর্গণনায় ফলাফল পরিবর্তন হলে অর্থ ফেরত দেওয়ার নিয়ম আছে এ রাজ্যে।

অ্যারিজোনা

ভোট ব্যবধান মোট ভোটের শূন্য দশমিক দশ শতাংশ (০.১০%) বা তার চেয়ে কম হলে, অ্যারিজোনায় এমনিতেই ভোট পুনর্গণনা করার আইন আছে। তবে, প্রার্থীদের পুনরায় গণনার জন্য আবেদনের কোনও সুযোগ নেই। গণনা শেষ করার জন্য কোনও নির্ধারিত সময়সীমাও নেই। পর্যবেক্ষকদের উপস্থিতিতেই গণনা প্রক্রিয়া পরিচালনা করতে হবে এ রাজ্যে।

Comments

The Daily Star  | English

Create right conditions for Rohingya repatriation: G7

Foreign ministers from the Group of Seven (G7) countries have stressed the need to create conditions for the voluntary, safe, dignified, and sustainable return of all Rohingya refugees and displaced persons to Myanmar

1h ago