চূড়ান্ত দলে চমক রানার অনুপস্থিতি

নেপালের বিপক্ষে দুটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচের ২৩ সদস্যের দলে জায়গায় হয়নি শেখ রাসেলের এই গোলরক্ষকের।
ashraful rana
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

গত দুই বছর ধরে বাংলাদেশের গোলপোস্টের নিচে প্রথম পছন্দ আশরাফুল ইসলাম রানা। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের চারটি ম্যাচের সবকটিতেই দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। কিন্তু নেপালের বিপক্ষে দুটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচের ২৩ সদস্যের দলে জায়গায় হয়নি শেখ রাসেলের এই গোলরক্ষকের। তাকে না রাখার ব্যাখ্যায় বাংলাদেশের কোচ জেমি ডে জানিয়েছেন, অন্যদের পরখ করে দেখতে চান তিনি।

বৃহস্পতিবার ঘোষিত চূড়ান্ত দলে প্রাথমিক দলের চার গোলরক্ষকের দুই জনকে রাখা হয়েছে। তারা হলেন বসুন্ধরা কিংসের আনিসুর রহমান জিকো ও আবাহনী লিমিটেডের শহীদুল আলম সোহেল। রানার মতো জায়গা পাননি সাইফ স্পোর্টিংয়ের পাপ্পু হোসেনও।

২০১৮ সালের অক্টোবরের ঢাকায় অনুষ্ঠিত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের পর থেকে গোলরক্ষক হিসেবে বাংলাদেশের আস্থার প্রতীকের নাম রানা। তবে তাকে না নেওয়ার কারণ হিসেবে সংবাদ সম্মেলনে জেমি বলেছেন, ‘(নেপালের বিপক্ষে) জয় পাওয়ার দিকে আমাদের মূল মনোযোগ নয়। আমি জানি রানা কী করতে পারে। তাই এই প্রীতি ম্যাচগুলোতে অন্যরা কী করে, সেটা দেখতে চাই আমি।’

ashraful rana
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

রানা ও পাপ্পু ছাড়াও চূড়ান্ত দলে ঠাঁই মেলেনি টুটুল হোসেন বাদশা, রায়হান হাসান, মনজুরুর রহমান মানিক, নাজমুল ইসলাম রাসেল, ফয়সাল আহমেদ ফাহিম ও মোহাম্মদ আবদুল্লাহ। শেষ মুহূর্তে চোট পাওয়ায় ছিটকে গেছেন আরিফুর রহমান। একই কারণে আগেই সরে গেছেন মামুনুল ইসলাম ও তারিক কাজী। তাছাড়া, ৩৬ সদস্যের প্রাথমিক দলে যোগই দেননি মতিন মিয়াঁ ও মাসুক মিয়াঁ জনি।

আগামীকাল শুক্রবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রথম ম্যাচে বিকাল ৫টায় মুখোমুখি হবে দুই দল। পরের ম্যাচটি মাঠে গড়াবে আগামী ১৭ নভেম্বর।

বাংলাদেশের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল:

গোলরক্ষক: আনিসুর রহমান জিকো, শহীদুল আলম সোহেল।

ডিফেন্ডার: তপু বর্মণ, ইয়াসিন খান, বিশ্বনাথ ঘোষ, সুশান্ত ত্রিপুরা, রহমত মিয়া, ইয়াসিন আরাফাত, রিয়াদুল হাসান, মানিক হোসেন মোল্লা।

মিডফিল্ডার: আতিকুর রহমান ফাহাদ, রবিউল হাসান, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, সোহেল রানা, জামাল ভূঁইয়া, রাকিব হোসেন।

ফরোয়ার্ড: বিপলু আহমেদ, সাদউদ্দিন, নাবীব নেওয়াজ জীবন, মাহবুবুর রহমান সুফিল, তৌহিদুল আলম সবুজ, এম এস বাবলু ও সুমন রেজা।

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh yet to benefit from GI-certified products

Bangladesh yet to benefit from GI-certified products

Bangladesh is yet to derive any benefit from the products granted the status of geographical indication (GI) due to a lack of initiatives from stakeholders although the recognition enhances the reputation of goods, builds consumer confidence and brings in higher prices.

6h ago