আগামী মৌসুমে মেসিকে নতুন ক্লাবে দেখছেন ফিগো

চলতি মৌসুমে নতুন ক্লাবে যোগ দিতে চেয়েছিলেন বার্সেলোনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। তবে ক্লাব সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউর অনেকটা জেদের কারণেই বার্সেলোনায় থেকে যেতে হয় তাকে। তবে আগামী মৌসুমে বার্সা অধিনায়ক ঠিকই অন্য কোনো ক্লাবে যোগ দিবেন বলে মনে করেন সাবেক বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ তারকা লুইস ফিগো।
messi
ছবি: রয়টার্স

চলতি মৌসুমে নতুন ক্লাবে যোগ দিতে চেয়েছিলেন বার্সেলোনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। তবে ক্লাব সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউর অনেকটা জেদের কারণেই বার্সেলোনায় থেকে যেতে হয় তাকে। তবে আগামী মৌসুমে বার্সা অধিনায়ক ঠিকই অন্য কোনো ক্লাবে যোগ দিবেন বলে মনে করেন সাবেক বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ তারকা লুইস ফিগো।

মূলত রিলিজ ক্লজের ৭০০ মিলিয়ন ইউরো আটকে রাখে মেসিকে। পাহাড়সম এ রিলিজ ক্লজ পরিশোধ করে তাকে কেনার মতো দল স্বাভাবিকভাবেই নেই বর্তমান বিশ্বে। যদিও চুক্তির ধারা অনুযায়ী বিনা রিলিজ ক্লজে দল ছাড়তে চেয়েছিলেন মেসি। কিন্তু সেটা কার্যকর করতে হলে যেতে হতো আদালত পর্যন্ত। আর প্রিয় ক্লাবকে কাঠগড়ায় তুলতে চাননি এ আর্জেন্টাইন।

এদিকে চলতি মৌসুমে নানা আর্থিক সংকটে ভুগছে বার্সেলোনা। খেলোয়াড়রা তাদের বেতন কমাতে না চাইলে দেউলিয়া হওয়ার পথে আছে ক্লাবটি। তার উপর আগামী মৌসুমে বার্সার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ ফুরচ্ছে মেসির। নতুন কোনো চুক্তির আভাসও নেই। তাই নতুন মৌসুমে তাকে নতুন কোনো ক্লাবেই দেখছেন ফিগো, 'প্রতিটি ক্লাবই মেসির মতো খেলোয়াড় পেতে চায়, তবে এটা নির্ভর করে ক্লাবের বর্তমান আর্থিক পরিস্থিতি, বেতন-ভাতা যা ক্লাবকে খরচ করতে হবে এবং খেলোয়াড়ের ইচ্ছার উপর।'

ক্লাব কর্মকর্তাদের সঙ্গে নানা জটিলতার কারণে ২০০০ সালে এক রাশ বিস্ময় উপহার দিয়ে বার্সেলোনা ছেড়ে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিয়েছিলেন ফিগো। বার্সা বোর্ডের এ সব ব্যাপার তাই খুব ভালো করেই জানেন এ পর্তুগিজ তারকা। তাই মেসি নতুন ক্লাবে যাওয়ার জন্য মনস্থির করে ফেলেছেন বলে মনে করেন তিনি, 'সাধারণত, জীবনে আপনি যদি কোথাও থাকতে না চান, দিনশেষে কোনো কিছুই আপনার মন পরিবর্তন করতে পারে পারবে না।'

তবে মেসির সঙ্গে কাতালান বোর্ডের আভ্যন্তরীণ ব্যাপার গুলো ভালো করেন জানেন না বলে জানালেন ফিগো, 'আমি অন্যসব ফুটবল ভক্তের মতো এ গ্রীষ্মে মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার চেষ্টা দেখতে পেয়েছি। এটা বিস্ময়কর এবং প্রত্যাশিত। এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য তার উদ্দেশ্য এবং কারণ অবশ্যই রয়েছে। আগে কী হয়েছিল জানি না।'

Comments

The Daily Star  | English

Shehbaz Sharif voted in as Pakistan's prime minister for second time

Newly sworn-in lawmakers in Pakistan's National Assembly elected Sharif by 201 votes to 92, three weeks after national elections marred by widespread allegations of rigging

53m ago