আইপিএলে লম্বা ধকলের পরও ভারতের বিপক্ষে ‘ফুরফুরে’ কামিন্স

মহামারির স্থবিরতা কাটিয়ে টানা ক্রিকেটীয় সূচি দেখে শঙ্কায় ছিলেন প্যাট কামিন্স
Pat Cummins
ছবি: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া

মহামারির স্থবিরতা কাটিয়ে টানা ক্রিকেটীয় সূচি দেখে শঙ্কায় ছিলেন প্যাট কামিন্স। গুরুত্বপূর্ণ খেলার আগে ক্লান্ত-শ্রান্ত হয়ে পড়েন কীনা এই উদ্বেগ কাজ করছিল তার ভেতর। কিন্তু ইংল্যান্ড সফর ও আইপিএলে তিন মাসের জৈব সুরক্ষিত বলয়ে থাকার পরও এই পেসার জানালেন, ভারতের বিপক্ষে নামার আগে যেকোনো সময়ের চেয়ে তরতাজা তিনি।

১৭ ডিসেম্বর থেকে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের কিছু অংশে বিশ্রাম নিবেন কিনা, এই নিয়ে সতীর্থদের সঙ্গে তার কথাবার্তা চলছিল বলে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার পডকাস্টে জানান,  ‘অবশ্যই একটা অপ্রত্যাশিত সময় যাচ্ছে, সামনে আরও লম্বা সময় বাবলে থাকতে হবে।  কাজেই আমরা নিজেদের মধ্যে কথাবার্তা চালাচ্ছি।’

‘কেউ কেউ বিশ্রাম নিতে চাইলে অবাক হবো না। কারণ আগামী বছর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরও আছে, পরেও আছে টানা খেলা।’

আইপিএলে যাওয়ার আগে ইংল্যান্ড সফরে সাউদাম্পটন ও ম্যানচেস্টারে সুরক্ষা বলয়ে ছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সে খেলা পেসার।

আইপিএল থেকে ফিরে সিডনিতে এখন তিনি ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে আছেন। কোয়ারেন্টিন শেষে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে সিরিজের দলে যোগ দেবেন। সিডনিতে ভারতের বিপক্ষে তাদের প্রথম ওয়ানডে ২৭ নভেম্বর।

স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, প্যাট কামিন্সদের মতো সব সংস্করণে খেলা তারকাদের ১২ দিনের মধ্যে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে ছয়টি ম্যাচ খেলতে হবে।

তাই টেস্টের মূল লড়াইয়ের আগে তাদের বিশ্রামের প্রসঙ্গে এসেছে। কামিন্স অবশ্য বিশ্রাম নেওয়ার দরকার মনে করছে না। তার মতে আইপিএলে সুরক্ষা বলয়ে থাকলেও বেশি ভ্রমণ করতে না হওয়ায় ধকল গেছে কম, ‘সংযুক্ত আরব আমিরাতে সুরক্ষা বলয়ের একটা সুবিধা ছিল যে খুব বেশি ভ্রমণ করতে হয়।’

‘সাধারণত আইপিএলে প্রতি ম্যাচের পরদিন আমাদের ফ্লাই করতে হত, ভিন্ন ভিন্ন শহরে যেতে হতো। এটা খেলায় অনেক ধকল নিয়ে নিত।’

ভারতের বিপক্ষে নামার আগে টেস্টের এক নম্বর পেসার জানালেন, ফুরফুরে আছেন তিনি, মুখিয়ে আছেন সেরা নৈপুণ্যের, ‘কোন সন্দেহ নেই এর আগে মহামারির কারণে ছয়-সাত মাস আমরা বাড়িতেই ছিলাম। তাজা  অবস্থায় ইংল্যান্ড ও আইপিএলে খেলতে গিয়েছি।’

‘ওই সফরগুলো শেষ করেও মনে হচ্ছে গ্রীষ্মটা শেষ হয়নি। অনুভূত হচ্ছে দারুণ তাজা অবস্থায় থেকে আমি খেলাগুলো শুরু করতে পারব।’

 

Comments

The Daily Star  | English

Hefty power bill to weigh on consumers

The government has decided to increase electricity prices by Tk 0.70 a unit which according to experts will predictably make prices of essentials soar yet again ahead of Ramadan.

18m ago