প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ৩ বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানগণ গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।
সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে তার সামরিক উপদেষ্টা ও তিন বাহিনীর প্রধানগণ সাক্ষাৎ করেন। ছবি: পিআইডি

সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানগণ গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।

প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিব হাসান জাহিদ তুষার আজ বিকেলে সাক্ষাতের বিষয়ে বলেন, ‘দিবসটি উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী সশস্ত্র বাহিনীর সকল সদস্য এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।’

শেখ হাসিনা বলেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে যাত্রা শুরু করার পর থেকে সশস্ত্র বাহিনী বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় অনেক প্রশংসনীয় অবদান রেখেছে এবং চলমান কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাব মোকাবিলার জন্যও কাজ করছে।

করোনা মোকাবিলাসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর গৌরবময় ভূমিকা রয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী করোনাকালীন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিটি সদস্যকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়েরও দায়িত্বে নিয়োজিত প্রধানমন্ত্রী সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশ করোনা বিপর্যয়ের মুখোমুখি হওয়ার পর বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী, বিশেষ করে সেনা, বিমান ও নৌবাহিনীর সদস্যরা যেভাবে বিভিন্ন জরুরি রোগী অথবা বিদেশ ফেরত লোকদের স্থানান্তর করার ক্ষেত্রে সেবা প্রদান এবং মানবিক কাজ করেছে সেজন্য তাদেরকে ধন্যবাদ দেন।

তিন বাহিনীর উন্নয়নে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, একুশ শতকের ভূ-রাজনৈতিক ও সামরিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সক্ষম বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়নে গত ১২ বছরে সরকার সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে এবং ভবিষ্যতেও প্রয়োজনীয় সকল সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতার প্রতিরক্ষা নীতি অনুসরণ করে ‘ফোর্সেস গোল ২০৩০’ এর আলোকে তিন বাহিনীর পুনর্গঠন ও আধুনিকায়নে কার্যক্রমসমূহ বাস্তবায়ন করছে সরকার।

গত প্রায় ১২ বছরে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়নে সরকারের ভূমিকার জন্য তিন বাহিনীর প্রধানগণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল এম শাহীন ইকবাল এবং বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবত সাক্ষাৎকালে নিজ নিজ বাহিনীর বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

তিন বাহিনীর প্রধান ছাড়াও এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিক, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের পিএসও লে. জেনারেল মো. মাহফুজুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল নকীব আহমেদ চৌধুরী।

Comments

The Daily Star  | English

Wildlife Trafficking: Bangladesh remains a transit hotspot

Patagonian Mara, a somewhat rabbit-like animal, is found in open and semi-open habitats in Argentina, including in large parts of Patagonia. This herbivorous mammal, which also looks like deer, is never known to be found in this part of the subcontinent.

7h ago