জানুয়ারিতে সেন্টার-ব্যাক কিনতে রাজি হয়েছে বার্সা

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে দলের আর্থিক অবস্থা খুবই শোচনীয়। বাধ্য হয়ে খেলোয়াড়দের বেতন ভাতা কমানোর দিকে তাকিয়ে আছে তারা। এমন অবস্থায় নতুন একজন খেলোয়াড় কেনা বেশ দুরূহ বার্সেলোনার জন্য। কিন্তু যে পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে তাতে একজন সেন্টার-ব্যাক না কিনলেই নয়। অন্যথায় প্রতিযোগিতায় টিকে থাকায় কষ্টকর হবে দলটির জন্য। তাই বাধ্য হয়েই জানুয়ারিতে একজন সেন্টার-ব্যাক কিনতে রাজি হয়েছে দলটি। এমন সংবাদ প্রকাশ করেছেন স্পেনের শীর্ষ সংবাদ মাধ্যম মুন্দো দিপার্তিভো ও স্পোর্ত।
ছবি: রয়টার্স

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে দলের আর্থিক অবস্থা খুবই শোচনীয়। বাধ্য হয়ে খেলোয়াড়দের বেতন ভাতা কমানোর দিকে তাকিয়ে আছে তারা। এমন অবস্থায় নতুন একজন খেলোয়াড় কেনা বেশ দুরূহ বার্সেলোনার জন্য। কিন্তু যে পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে তাতে একজন সেন্টার-ব্যাক না কিনলেই নয়। অন্যথায় প্রতিযোগিতায় টিকে থাকায় কষ্টকর হবে দলটির জন্য। তাই বাধ্য হয়েই জানুয়ারিতে একজন সেন্টার-ব্যাক কিনতে রাজি হয়েছে দলটি। এমন সংবাদ প্রকাশ করেছেন স্পেনের শীর্ষ সংবাদ মাধ্যম মুন্দো দিপার্তিভো ও স্পোর্ত।

স্যামুয়েল উমতিতি, রনালদ আরাউজো ও জেরার্দ পিকের সঙ্গে কদিন আগে ইনজুরি তালিকায় যোগ দিয়েছেন ক্লেমো লংলেও। ফলে মূল দলের সেন্টার-ব্যাক কেউ-ই আর ফিট নেই। তাই দলের মিডফিল্ডারদের রক্ষণ সামলাতে হচ্ছে কোচ রোনাল্ড কোমানকে। এমনকি বি দলের অনভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের নামাতে হচ্ছে বড় মঞ্চে। কিন্তু তাই দিয়ে আর কতো দিন চালাবেন? পাঁচ-ছয় মাসের মধ্যেও পিকের মাঠে ফেরার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। তাই বিকল্প ডিফেন্ডার কেনার কোনো বিকল্পই নেই দলটির জন্য।

মুন্দোর সংবাদ অনুযায়ী, বার্সার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সঙ্গে এ নিয়ে ইতোমধ্যেই আলোচনা করেছেন কোমান। ম্যানচেস্টার সিটির তরুণ এরিক গার্সিয়া তাদের প্রথম লক্ষ্য। আরেক সংবাদমাধ্যম স্পোর্তও প্রায় একই ধরণের সংবাদ প্রকাশ করেছে। যদিও তাদের সংবাদ অনুযায়ী দিন দশেকের মধ্যেই সুস্থ হয়ে যাবেন লংলে। তারপরও কোচ কোমান একজন সেন্টার-ব্যাকের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছেন। তাই জানুয়ারিতে হোফেনহেইমের ১৮ বছর বয়সী তরুণ ডিফেন্ডার মেলারো বোগার্দেকে কিনতে চাইছেন বলে জানিয়েছে তারা।

সংবাদ অনুযায়ী, এ তরুণকে কিনতে ২ মিলিয়ন ইউরো খরচ হবে। আর্থিক দিক বিবেচনা করেই এমন সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে দলটি। বোগার্দে সেন্টার-ব্যাক হওয়া সত্ত্বেও রাইট ব্যাক পজিশনেও খেলতে পারেন। এছাড়া সেন্ট্রাল-ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হিসেবেও খেলতে পারেন। কোমানের আগ্রহ বেশি এ কারণেই।

এদিকে, কাতালুনিয়া রেডিওর সংবাদ অনুযায়ী, জানুয়ারিতে ক্লাবে ফিরতে পারেন জিয়ান-ক্লেয়ার তোদিবো। চলতি মৌসুমের শুরুতেই ধারে শালকে’০৪ এ যোগ দিয়েছেন তিনি। পরে যোগ দেন বেনফিকায়। যদিও এখন বেনফিকার হয়ে মাঠে নামেননি। তার পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট নয় ক্লাবটি। যে কারণে তাকে ফিরিয়ে দিতে চায় তারা।

Comments

The Daily Star  | English

Student in Rangpur killed during protesters' clash with police

Abu Sayeed, a student of Rangpur’s Begum Rokeya University, was killed during a clash between police and protesters seeking quota reform on the campus

17m ago