নদীর জমিতে সরকারি কোনো প্রতিষ্ঠানও করা যাবে না: নদী রক্ষা কমিশন চেয়ারম্যান

ধলেশ্বরী নদীর ওপর নির্মিত শহীদ রফিক উদ্দিন সেতু নির্মাণে নদীর দুই পাশে জায়গা দখল হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মজিবুর রহমান হাওলাদার। তিনি বলেন, নদী বা নদীর জায়গা দখল করে কোনো স্থাপনা নির্মাণ শাস্তিযোগ্য অপরাধ।
মঙ্গলবার সকালে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার ধল্লা এলাকায় ধলেশ্বরী নদী পরিদর্শন করেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান হাওলাদার। ছবি: স্টার

ধলেশ্বরী নদীর ওপর নির্মিত শহীদ রফিক উদ্দিন সেতু নির্মাণে নদীর দুই পাশে জায়গা দখল হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মজিবুর রহমান হাওলাদার। তিনি বলেন, নদী বা নদীর জায়গা দখল করে কোনো স্থাপনা নির্মাণ শাস্তিযোগ্য অপরাধ। 

মঙ্গলবার সকালে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার ধল্লা এলাকায় ধলেশ্বরী নদী পরিদর্শন শেষে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘সেতু করবেন ভালো কথা, এটি জনগনের জন্য, কিন্তু সেতু করে দুই দিকের নদী মেরে রাস্তা করা হয়েছে এবং তার জন্য নদীর উভয় পাশেই পলি জমে গেছে। যার কারণে অনেকেই সুযোগ পেয়ে নদীর জায়গা দখল করতে শুরু করেছে। এটি করা যাবে না, এটি অপরাধ। এখন এটি যারা করল, তারাও এই অপরাধে অপরাধী, এই অপরাধের সাজা ৭ বছর। তারা সরকারি কর্মচারী হলেও এটি করতে পারবে না। নদীর জমিতে সরকারি কোন প্রতিষ্ঠানও করা যাবে না।’

নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘নদী বা নদীর কোন জায়গা দখল করে কিংবা এর শ্রেণি পরিবর্তন করে কোন সরকারি, বেসরকারি স্থাপনা, বাড়িঘর, কলকারখানা নির্মাণ করা যাবে না। কেউ যদি নদী দখলের কিংবা নদীর ক্ষতি করার চেষ্টা করে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা শিল্প চাই, উন্নয়ন চাই, নদীর সাথে উন্নয়নের কোন বিরোধ নেই, আমাদের সব কিছুই করতে হবে নদীর স্বাভাবিক প্রবাহ ঠিক রেখে।

তিনি বলেন, নদী সবসময় ব্যবসা বাণিজ্য, নৌ চলাচলে আমাদের জন্য সাশ্রয়ী। কিন্তু আমরা মাটি, বালি ফেলে নদীকে প্রথমে ডুবোচরে এবং পরে চরে রূপান্তর করি। এটি বন্ধ করতে হবে।

নদী রক্ষায় স্থানীয় প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এসময় বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের সহসভাপতি সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, আমরা লক্ষ্য করেছি, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই রাজনৈতিকভাবে প্রভাবশালীরাই নদী দখলে করে, কিংবা তাদের যোগসাজসেই এটি হয়ে থাকে। নদী রক্ষার যেই আইনগুলো রয়েছে তার সবগুলোই নদী রক্ষার পক্ষে। আমরা চাইব পরিবেশ আন্দোলন ও নাগরিকদের পক্ষ থেকে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদে প্রশাসনকে যেন সরকারের রাজনৈতিক মহল থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা দেওয়া হয়।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মানিকগঞ্জ জেলার সহকারী জেলা প্রশাসক (রেভিন্যু) শাহীনা আক্তার, সিংগাইর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুনা লায়লাসহ অনেকে।

Comments

The Daily Star  | English

Trump assassination attempt: How it unfolded

Donald Trump was hit in the ear in an assassination attempt by a gunman at a campaign rally Saturday

41m ago