ছাত্রদের আন্দোলনে নামানোর অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষককে অব্যাহতি

ছাত্রদের আন্দোলনে নামানোর অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কান্দিপাড়ার জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মুফতি আব্দুর রহিম কাসেমীকে প্রতিষ্ঠানটির সব পদ ও শিক্ষকতা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।
Abdur Rahim Quashemi.jpg
মুফতি আব্দুর রহিম কাসেমী। ছবি: সংগৃহীত

ছাত্রদের আন্দোলনে নামানোর অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কান্দিপাড়ার জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মুফতি আব্দুর রহিম কাসেমীকে প্রতিষ্ঠানটির সব পদ ও শিক্ষকতা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

মাদ্রাসার সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরামের (মজলিশে ইলমিয়া) সদস্যরা গত মঙ্গলবার জরুরি বৈঠক করে এমন সিদ্ধান্ত নেয়। মাদ্রাসার মোহতামিম মুফতি মুবারকুল্লাহ স্বাক্ষরিত এক নোটিশে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়।

নোটিশে বলা হয়, মুফতি আব্দুর রহিম কাসেমী গত ১২ নভেম্বর যোহর নামাজ শুরুর আগে ভিত্তিহীন বক্তব্য দিয়ে মাদ্রাসার ছাত্র ও বহিরাগতদের ভুল বুঝিয়ে বিক্ষোভ ও বিদ্রোহে লেলিয়ে দেন। সেসময় তিনি মাদ্রাসার প্রবীণ একজন ওস্তাদকে লাঞ্ছিত করেন এবং সন্ত্রাসী কায়দায় তাকে উঠিয়ে নিয়ে যান। তিনি শতবর্ষী মাদ্রাসাটির ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে নষ্ট করে নিজ নেতৃত্বদানের লোভে বিদ্রোহের পরিবেশ তৈরি করেন। 

এ ছাড়া, তিনি মুহতামিমকে ধমক দিয়ে মসজিদ ও মাদ্রাসার দপ্তরের সামনে ছাত্রদের বিক্ষোভ ও বিদ্রোহে লেলিয়ে দেন বলে অভিযোগ আনা হয়। জামিয়ার দপ্তরের ফটকে লাথি মারাসহ হট্টগোল ও ত্রাসের সৃষ্টি করার অভিযোগ তুলে বলা হয়, তিনি মাদ্রাসায় কয়েকটি খুন হবে বলেও হুমকি দেন।

মুফতি আব্দুর রহিম কাসেমী প্রতিষ্ঠানের খাদেম আব্দুল কুদ্দুছকে নারী সাজিয়ে মাদ্রাসার কয়েকজন ওস্তাদকে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করেন। এ অপরাধে পুলিশ আব্দুল কুদ্দুছকে গ্রেপ্তার করে, যিনি এখনো পর্যন্ত কারাগারে আছেন।

Comments

The Daily Star  | English

Attack on Rafah would be 'nail in coffin' of Gaza aid: UN chief

A full-scale Israeli military operation in Rafah would deliver a death blow to aid programmes in Gaza, where humanitarian assistance remains "completely insufficient", the UN chief warned today

1h ago