ইউটিউবে হ্যাকিং শেখা দম্পতি প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তার

নিজের হ্যাক হওয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট উদ্ধারে ইউটিউবে টিউটোরিয়াল দেখা। টিউটোরিয়াল দেখে নিজের আইডি উদ্ধারের করার পর, মাথায় চাপে হ্যাকিং-প্রতারণা করে টাকা আদায়ের। এভাবেই প্রতারণা করে অর্থ আদায়ের অভিযোগে চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার হলেন হবিগঞ্জের তরুণ আসাদুজ্জামান পলাশ ও তার স্ত্রী সাদিয়া।

নিজের হ্যাক হওয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট উদ্ধারে ইউটিউবে টিউটোরিয়াল দেখা। টিউটোরিয়াল দেখে নিজের আইডি উদ্ধারের করার পর, মাথায় চাপে হ্যাকিং-প্রতারণা করে টাকা আদায়ের। এভাবেই প্রতারণা করে অর্থ আদায়ের অভিযোগে চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার হলেন হবিগঞ্জের তরুণ আসাদুজ্জামান পলাশ ও তার স্ত্রী সাদিয়া।

ফেসবুকে হ্যাক হওয়া আইডি পুনরুদ্ধারের করে দেওয়া, ফেসবুক পেজ বুস্ট, আইডি ভেরিফাইড বা ফলোয়ার বাড়ানোর চটকদার বিজ্ঞাপনের নামে প্রথমে ব্যক্তির আইডি হ্যাক এবং পরে সেই আইডি থেকে ছবি ও ভিডিও সংরক্ষণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ওয়েবসাইটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে টাকা আদায় করতেন এই দম্পতি।

চট্টগ্রামের হালিশহর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা এক মামলায় কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সদস্যরা শুক্রবার হবিগঞ্জের সদরের মাহমুদাবাদ এলাকা থেকে ২১ বছর বয়সী পলাশকে সন্ত্রীক গ্রেপ্তার করে।

পলাশের স্ত্রী সাদিয়া সরকার (২০) একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তাদের কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোন ও বিকাশের টাকা আদান প্রদানের জন্য ব্যবহৃত ছয়টি মোবাইল সিম জব্দ করে পুলিশ ।

কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের উপপুলিশ কমিশনার হামিদুল আলম আজ শনিবার সংবাদ সম্মেলনে জানান, গত ২৬ নভেম্বর এক গৃহবধূর ছোট বোনের ফেইসবুক আইডি হ্যাক করা হয়। সেই আইডি পুনরুদ্ধারের জন্য তিনি ফেসবুকে বিভিন্ন পেজ খুঁজতে খুঁজতে একটি পেজ দেখতে পান যেখানে আইডি পুনরুদ্ধার করে দেওয়ার কথা বলা হয়।

‘ওই পেজে যোগাযোগ করলে সেখান থেকে তানজিলা আক্তার তুলি নামে পরিচয় দেওয়া এক নারী ওই গৃহবধূকে ফোন করে ১৪০০ টাকা বিকাশে পাঠাতে বলে একটি নম্বর দেয়। টাকা পাঠানোর পর ওই ভুক্তভোগীকে গত ২৮ নভেম্বর রাতে ম্যাসেঞ্জারে তুলি ফোন করে পাঁচ মিনিটে আইডি উদ্ধার করে দেওয়ার আশ্বাস দেয় এবং সেজন্য একটি লিঙ্ক পাঠিয়ে তার জয়েন্ট অ্যাকাউন্টের কথা বলে পাসওয়ার্ড দিতে বলে। নির্দেশনা অনুযায়ী সেই গৃহবধূ পাসওয়ার্ড দেওয়ার পরপরই তার আইডি লগ আউট হয়ে যায়,' উপপুলিশ কমিশনার হামিদুল বলেন।

তিনি জানান, ‘গ্রেপ্তারকৃতরা ওই গৃহবধূ ও তার প্রবাসী স্বামীর ছবি নিয়ে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে টাকা দাবি করে।’

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার আসিফ মহিউদ্দিন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘অনলাইনে অনেকেই আইডি পুনরুদ্ধার করে দেওয়া বা পেজ বুস্ট বা ভেরিফাই করার কথা বলে কৌশলে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাতিয়ে নিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে টাকা আদায় করত।’

‘মানুষ সচেতন না হলে এই ধরণের অপরাধ কমানো কঠিন,’ বলেন তিনি।

তিনি জানান, পলাশের কাছ থেকে উদ্ধার করা মোবাইলে বিভিন্ন নামের ৪৭টি লগইন করা ফেইসবুক আইডি পাওয়া গেছে এবং পাশাপাশি ১৭টি ম্যাসেঞ্জার আইডিও লগইন করা অবস্থায় পাওয়া গেছে।

কাউন্টার টেররিজমের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের উপপুলিশ পরিদর্শক (এসআই) রাসিব খান বলেন, ‘পলাশই মূলত বিভিন্ন ব্যক্তির ফেইসবুক আইডি হ্যাক করে টাকা নেওয়ার কাজটি করে। আর এতে তুলি নাম নিয়ে সহায়তায় করেন স্ত্রী সাদিয়া।’

ড্রপ-আউট, অতঃপর পালিয়ে বিয়ে

পুলিশের সুত্র মতে, হ্যাকার পলাশের সঙ্গে সাদিয়ার পরিচয় কলেজে থাকার সময়। ২০১৭ সালে সাদিয়া কলেজের গন্ডি পেরুলেও পলাশ পারেনি। পলাশের সঙ্গে সাদিয়ার মোবাইল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যোগাযোগ রাখত। আড়াই মাস আগে পরিবারের সম্মতি ছাড়াই তারা বিয়ে করেন।

পুলিশ জানায়, বছর দুয়েক ধরে তারা বিভিন্ন আইডি হ্যাক করে সেখান থেকে টাকা আদায় করত বিকাশে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করা হবে।

Comments